শীতার্ত মানুষের কম্বল জড়িয়ে দিচ্ছেন দেশ সেরা উদ্ভাবক মিজান

প্রকাশিত: ১:২২ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০২০ | আপডেট: ১:২২:পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০২০
মোঃ আইয়ুব হোসেন পক্ষী,বেনাপোল প্রতিনিধিঃ গভীর রাতে সবাই যখন গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন, ঠিক তখনই রাস্তার পাশে পাগল, ভিক্ষুক এবং রেলস্টেশন ও স্কুলের বারান্দায় শীতে কুঁকড়ে শুয়ে থাকা শীতার্ত মানুষের গায়ে উষ্ণ কম্বল জড়িয়ে দিচ্ছেন যশোরের শার্শার সন্তান মিজানুর রহমান।
চলতি শীত মৌসুমে তীব্র শীতের প্রকোপ শুরু হয়েছে। কনকনে শীতের রাতে জবুথবু হয়ে রাস্তার ধারে ফুটপাতে ঘুমাতে হয় গৃহহীন, পাগল, ভিক্ষুক ও ছিন্নমূল মানুষদের। শীতার্ত এসব অসহায় মানুষের পাশে দেশের বিভিন্ন স্থানে অনেকে এগিয়ে এলেও এবার সেই তালিকায় নিজের নাম লেখালেন দেশসেরা উদ্ভাবক মিজানুর রহমান।
প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত শার্শা উপজেলাসহ অন্যান্য এলাকার অলিতে-গলিতে শীত নিবারণের জন্য কম্বল, সোয়েটার নিয়ে ঘুরে ঘুরে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে বিতরণ করছেন। অত্যন্ত যত্ন ও আদর মাখানো হাতে কম্বল, সোয়েটার জড়িয়ে তাদের খোঁজখবর নিচ্ছেন। পাশাপাশি রাতের খাবার বিতরণও অব্যাহত রেখেছেন মিজানুর রহমান।
মিজানুরের এমন উদ্যোগ এরই মধ্যে প্রশংসিত হয়েছে। সবার নজর কেড়েছে নাভারন ফ্রি খাবার বাড়িতে তার প্রতিষ্ঠিত ‘মানবতার খাম্বা’ নামক পিলারটি। সেখানে সুবিধাবঞ্চিত শীতার্ত মানুষের জন্য ঝোলানো আছে প্যান্ট, সোয়েটারসহ বিভিন্ন গরম কাপড়।
সম্প্রতি এক কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে নাভারন সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জুয়েল ইমরান মানবতার সেবক হিসেবে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপনের জন্য মিজানুর রহমানের প্রশংসার পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।