রিটকারী বিএনপি নেতাকে নিয়ে বিব্রত বিএনপি

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১১:৫২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৭, ২০১৮ | আপডেট: ১১:৫২:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৭, ২০১৮

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে ভোট স্থগিত চেয়ে রিটকারী ভাটারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ভাটারা থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমানকে নিয়ে বিব্রত দলের নেতারা।

দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলঅম আলমগীরসহ নেতারা বুধবার দিনভর অভিযোগ করে বলেছেন,’হাইকোর্টে উপনির্বাচন স্থগিত হওয়ার পেছনে সরকারের হাত আছে। সরকার নিজের লোক দিয়ে রিট করিয়ে নির্বাচন বন্ধ করে দিয়েছে। কোর্টে নিজেদের লোক দিয়ে রিট করিয়ে নির্বাচন স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে।’ তবে বাস্তবতা হলো দুই রিটকারীরর অন্যতম আতাউর রহমান হলেন বিএনপি মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ নেতা। বিএনপি নেতারা আতাউরকে এখন সরকারের লোক বলছেন। আতাউরের প্রশ্নে দলের সিনিয়র কোন নেতা মুখ খুলছেন না।
বিএনপি নেতা আতাউরের পাশাপাশি বেরাইদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমও সোমবার ভোট স্থগিত চেয়ে রিট করেন হাইকোর্টে।

এদিকে আতাউর রহমান জানিয়েছেন, তিনি উচ্চ আদালতে গেছেন নিজের সিদ্ধান্তে। দলের কারও সঙ্গে যেমন তার কথা হয়নি, তেমনি তার সঙ্গে দলের কেউ যোগাযোগ করেনি।
আতাউর রহমান বলেন, আমি বিএনপির নেতা হতে পারি, কিন্তু আমি তো লোকাল চেয়ারম্যান। দলকেও আমার কথাটা বুঝতে হবে। রিট নিয়ে আমি বিএনপির কারও সঙ্গে কথা বলিনি, তারাও কেউ আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেননি।

অপর রিটকারী জাহাঙ্গীর আলমের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে পরে, কোর্টে। তিনি বলেন, আমি নিজেও কাউন্সিলর পদে ভোটের প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। আমার ওয়ার্ডে বিএনপির সমর্থনও চেয়েছিলাম। সরকার যদি নির্বাচন দিয়েই দেয়, সেইজন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। দলের থেকেও সমর্থন পেয়েছি। আমি সব পথ খোলা রেখেছি।