বউভাতের দিন বরের মৃত্যু, কনে হাসপাতালে

প্রকাশিত: ৮:৫৯ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০২০ | আপডেট: ৯:০৫:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০২০

গত সোমবার ম’য়নাদের বাড়িতে বিবাহোত্তর অনু’ষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বুধবার ছি’ল ছেলের বাড়িতে বৌ’ভাত। মির্জাগঞ্জ উপ’জেলা পরিষদের ভাইস চে’য়ারম্যান গণমাধ্যমকে বলেন, র’ফিকুল ইসলাম দীর্ঘদিন ধরে থ্যালাসেমিয়া রো’গে আক্রান্ত। কিছুদিন পর পর তার রক্ত প’রিবর্তন করতে হয়। রফিকুল অসুস্থ থাকায় এ’তদিন বিয়ে করেননি।
সম্প্রতি পারিবা’রিকভাবে তার বিয়ে হয়। সোমবার অ’নুষ্ঠান করে নববধূকে বাড়িতে তুলে আনেন তি’নি। বুধবার ছেলের বাড়িতে বৌভাতের আ’য়োজন করা হয়। মেয়ের বাড়ির লোকজন, স্থা’নীয় লোকজন ও আত্মীয়-স্বজন আ’সেন অনুষ্ঠানে। এমন আনন্দঘন পরিবেশ প’রিণত হয় বিষাদে।

বরের বাড়িতে বৌ’ভাত উপলক্ষে চলছিল রান্না-বান্না, বা’ড়ি ভর্তি মেহমান, চারদিকে উৎসবের আ’মেজ। কিন্তু বেশিক্ষণ স্থায়ী হ’য়নি এ আনন্দ নিমিষেই প’রিণত হয় বিষাদে। বৌভাতের দি’নই না ফেরার দেশে পাড়ি জমান বর মো. রফিকুল ইসলাম (৩০)।

বুধবার দু’পুরে এমন হৃদয়বিদারক ঘটনাই ঘটে প’টুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলায়। দু’পুরে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হা’সপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ক’য়েকদিন আগে উপজেলার মাধবখালী ইউ’নিয়নের সফিকুল ইসলামের ছে’লে রফিকুল ইসলামের সঙ্গে বেতাগী ভাসনদা এ’লাকার আবদুল মান্নানের মেয়ে ময়নার বিয়ে হয়।

এদিকে, স্বামীর মৃ’ত্যুর খবর পেয়ে নববধূ ময়না জ্ঞান হা’রিয়ে ফেললে তাকেও বরিশাল শেরে বাংলা মেডি’কেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প’রে তিনি সুস্থ হন।