ফেনীর ধর্ষণ মামলার এক আসামি কারাগারে থেকে বিয়ে করে মুক্তির জন্য জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন

প্রকাশিত: ১:১৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৯, ২০২০ | আপডেট: ১:১৪:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৯, ২০২০

ফেনীর ধ’র্ষণ মামলার এক আসামি কারাগারে থেকে বি’য়ে করে মুক্তির জন্য জামিন চে’য়ে হাইকোর্টে আবেদন ক’রেছন। সোম’বার (৩০ নভেম্বর) এ বিষয়ে আদে’শ দেবেন হাইকোর্ট।

রোববার (২৯ নভেম্বর) বিচা’রপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচা’রপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হা’ইকোর্ট বেঞ্চ আদেশের জন্য এদিন ধার্য করেন। আ’সামি জিয়া উদ্দিনের আইনজীবী ফা’রুক আলমগীর চৌধুরী বিষয়টি নি’শ্চিত করেছেন।

১৯ নভেম্বর ফেনীর কারা’গারে আসামি জিয়া উদ্দিনের সঙ্গে বি’য়ে হয় ধ’র্ষণের শিকার ওই নারী। মামলার আ’সামি জহিরুল ইসলাম ওরফে জিয়া উদ্দি’নের’ বা’ড়ি ফেনীর সোনাগাজীর ৮নং চর’দরবেশ ইউনিয়নের দক্ষিণ প’শ্চিম চর দরবেশ গ্রা’মে।

গত ২৭ মে ভো’রে একই ঘরে অবস্থান করা অবস্থায় গ্রা’মবাসী জিয়া ও অভিযোগকারী মেয়ে’টিকে আটক করে। স্থানীয়রা দুজনকে বি’য়ে দিতে চাইলে জিয়া ও ছেলের বাবা আবু সু’ফিয়ান মেম্বার রাজি হননি। সেদিন মে’য়েটি সোনাগাজী থানায় ধর্ষণ মামলা ক’রেন। পুলিশ একইদিন গ্রেফতার করে জি’য়াকে।

বিচারিক আদালতে ব্য’র্থ হয়ে জিয়ার জামিনের জন্য হা’ইকোর্টে আবেদন করেন তিনি। প’রে গত ১ নভেম্বর বিচারপ’তি এম ইনায়েতুর রহিম ও বি’চারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমা’নের বেঞ্চ আদেশ দেন জিয়া ওই মে’য়েকে বিয়ে করলে জামি’নের বিষয়টি বিবেচনা করা হবে। ও’ই আদেশের পরই ফেনী জেলা কা’রাগারে তাদের বিয়ে স’ম্পন্ন হয়।