বরগুনার আমতলীতে এক জেলের পাঁচ হাজার টাকা অর্থদন্ড

আল নোমান আল নোমান

বরগুনা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১:৪৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৭, ২০২০ | আপডেট: ১১:৪৬:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৭, ২০২০

ইলিশ প্রজনন মৌসুমে সরকারী নির্দেশনা উপেক্ষা করে মাছ শিকারের ঘটনায় জসিম উদ্দিন ফকির নামের এক জেলেকে পাচ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে এক মাসের সাজা দিয়েছেন আমতলী ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক। মঙ্গলবার বিকেলে আদালতের বিচারক ইউএনও মোঃ আসাদুজ্জামান ওই জেলেকে এ দন্ডের আদেশ দেন।
জানাগেছে, ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ইলিশ প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ শিকার নিষিদ্ধ করেছে সরকার। সরকারী এ নির্দেশনা উপেক্ষা করে সোমবার গভীর রাতে আমতলী উপজেলার গুলিশাখালী গ্রামের জসিম উদ্দিন ফকির অবৈধ কারেন্ট জাল নিয়ে পায়রা নদীতে মাছ শিকারে যান। এ সময় আমতলী উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবুল আলমের নেতৃত্বে মৎস্য বিভাগ ও পুলিশের যৌথ অভিযানে তাকে আটক করে। এ সময় তার নৌকা থেকে ১৪ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। মঙ্গলবার বিকেলে তাকে আমতলী ভ্রাম্যমান আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালতের বিচারক ইউএনও মোঃ আসাদুজ্জামান জেলে জসিমকে ৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে এক মাসের সাজা এবং জব্দকৃত জাল পুড়িয়ে ফেলার নির্দেশ দেন। মৎস্য রক্ষা ও সংরক্ষণ আইনের ৪ (১) ধারায় এ রায় দেয়া হয়।
আমতলী ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ইউএনও মোঃ আসাদুজ্জামান বলেন, জেলে জসিমকে ৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে এক মাসের সাজা দেয়া হয়েছে। এছাড়া জব্দকৃত জাল মৎস্য বিভাগকে পুড়িয়ে ফেলার নির্দেশ দিয়েছি।