মাস্ক না পরলে সকল প্রতিষ্ঠানে সেবা বন্ধের নির্দেশ

প্রকাশিত: ৫:৪০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৫, ২০২০ | আপডেট: ৫:৪০:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৫, ২০২০

মাস্ক ছাড়া কোনও স’রকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সে’বা না দেওয়ার নির্দেশ দি’য়েছে সরকার। সোমবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে ম’ন্ত্রিসভার বৈঠকের পর সচিবালয়ে এক প্রেস ব্রি’ফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ স’চিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ ত’থ্য জানান।

এর আগে প্র’ধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স’ভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার ভা’র্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। প্র’ধানমন্ত্রী গণভবন থেকে এবং মন্ত্রিপরিষদের অন্য স’দস্যরা সচিবালয় থেকে এই সভায় যোগ দে’ন।

প্রেস ব্রি’ফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, চার’দিকে ম্যাসিভ ইন্সট্রাকশন দে’ওয়া হয়েছে, সব স্তরেই। আমাদের যতগুলো ই’নস্টিটিউশন আছে, লো’কাল বা অর্গানাইজেশনাল প্রতি’ষ্ঠান সব জায়গায় নির্দেশনা দিয়েছি ‘নো মাস্ক নো সা’র্ভিস’। সব প্রতিষ্ঠান, হাট, বা’জার, শপিংমল, স্কুল, সামা’জিক বা ধর্মীয় সম্মেলনে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে– এই নি’র্দেশনা দিয়ে দিয়েছি আমরা। গত মিটিং’য়েও বলেছিলাম, আমরা ডিভিশনাল কমিশনা’রদের ইতোমধ্যেই নির্দেশনা দিয়ে দি’য়েছি সব সরকারি-বেসরকারি অ’ফিসের বাইরে বড় একটা পো’স্টার দেওয়া থাকবে– মা’স্ক ছাড়া প্রবেশ ক’রতে পারবেন না এবং মাস্ক ছাড়া কে’উ সার্ভিস ব্যবহার ক’রতে পারবেন না।

সব জায়গায় মা’স্ক ব্যবহারে কঠোর পদক্ষেপ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের সব মস’জিদে অন্তত দু’বার নামাজের পর মাস্ক পরার বিষয়ে রাষ্ট্রীয় আদেশ প্র’চার করতে হবে। আলেম-ওলামাদের স’ঙ্গেও কথা বলেছি, তারাও সেটার সঙ্গে একমত। সরকারি প্রতিষ্ঠানে মাস্ক ছাড়া ঢুকতেই দেওয়া হবে না। শুধু স’রকারি নয়, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানেও। গণ’পরিবহনের বিষয়েও আমরা ক’থা বলবো। আমরা সড়ক, নৌপরিবহন ও রেল সচিবের সঙ্গে কাল-পরশুই ব’সবো। সেখানে একটা সি’ন্ত নেবো। ‘নো মাস্ক নো সার্ভি’স’ এটা অলরেডি ক’নভে করা হয়ে গেছে।

করো’নার সময় অন্য রোগীদের সেবা পে’তে সমস্যা হয়েছে, আবার দ্বি’তীয় ঢেউ আসছে- এ বিষয়ে খন্দকার আনোয়ারুল ই’সলাম বলেন, এখন আল্লাহর র’হমতে ওই প্রবলেমটা হবে না। এখন এক’টা ট্রিটমেন্ট প্রোটকল চ’লে আসছে। ওই প্যানিকটা (আতঙ্ক) চলে গে’ছে। ইনিশিয়ালি (শুরুতে) তো বো’ঝা যাচ্ছিল না জিনিসটা কী? ডা’ক্তার-স্টাফরাও এখন আর অত ভয় পাচ্ছে না। আ’মি দু-একটি হাসপাতা’লে গিয়ে দেখেছি।

হাস’পাতালগুলোতে এ বিষয়ে কো’নো নির্দেশনা আছে কিনা- এ বি’ষয়ে তিনি বলেন, নির্দে’শনা আছে, কোভিড ও নন-কো’ভিড দুটোকে আলাদা করে চি’কিৎসা করা। ঢাকা মেডিকেলেই দেখেন কোভি’ড আ’লাদা হয়ে গেছে, এটা আ’লাদা হয়ে গেছে। কো’নো অসুবিধা হ’চ্ছে না।