আড়াইহাজারে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন

প্রকাশিত: ৪:৫১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০২০ | আপডেট: ৪:৫১:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০২০

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহা’জারে পারিবারিক কলহের জের ধরে কলাগাছ প’ড়ে বালতি ভাঙাকে কেন্দ্র করে ছোট ভাই ও তার ছেলে, স্ত্রী মিলে পিটিয়ে হত্যা করেছে বড় ভাই ফজ’লু (৬৫)কে। ঘটনাটি ঘটেছে, শু’ক্রবার (২৩ অক্টোবর) বিকাল পৌনে ৪টায় উপজেলার ব্রাহ্মন্দী পূর্বপা’ড়া এলাকায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জা’না গেছে, ব্রাহ্মন্দী পূর্বপাড়া এলাকার’ মৃত গণি মি’য়ার ছেলে ফজলু ও এবাদুল্লাহর মধ্যে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল। বিকালে বড় ভাই ফজলু তা’র বাড়ির সীমানায় একটি প্লা’স্টিকের বালতি রেখে কাজ করছিল। ওই সময় সীমানা সংলগ্ন এবাদুল্লাহর একটি কলাগাছ আচ’মকা বালতির ওপর পড়ে। এতে করে প্লা’স্টিকের বালতিটি ভেঙে যায়। এ বালতি ভেঙে যাওয়াকে কেন্দ্র করে বড় ভাই ফ’জলু ছোট ভাইয়ের কাছে বালতির ক্ষতি পূরণ দা’বি করে। কিন্তু ছোট ভাই এবাদুল্লাহ ক্ষতি পূরণ দিতে অস্বীকার করে।

এ ঘটনায় দুই ভাই ফজলু’ ও ছোট ভাই এবাদুল্লাহ তর্কে লি’প্ত হয়। পরে এবাদুল্লাহর ছেলে সা’কিব ও স্ত্রী সেলিনা আক্তার তাদের তর্কে জড়িয়ে পড়ে। ওই সময় তারা ক্ষিপ্ত হয়ে ফ’জলুকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে ও কিল ঘুষি মে’রে ঘটনাস্থলেই হত্যা করে। পরে এবাদুল্লাহ ও তার ছেলে সাকিব পালিয়ে যায়। পু’লিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহ’ত ফজ’লুর লা’শ উদ্ধার করে এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত এবাদুল্লার স্ত্রী সে’লিনা আক্তার (৪০)কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

স্থানীয় লো’কজন জানান, বৃহস্পতিবার থেকে শুক্র’বার দিনব্যাপী প্রচণ্ড বৃষ্টির কারণে মা’টি নরম হয়ে কলাগাছটি পড়ে যায়। এতে কোনো পক্ষেরই হাত না থাকলেও পূর্বে’র বিরোধের কারণে উভয় পক্ষই ঝগড়ায় জ’ড়িয়ে পড়ে।

আড়াইহাজার থা’নার ওসি নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকা’র করে জানান, এ ঘটনায় এবাদুল্লাহর স্ত্রী সেলিনাকে তাৎক্ষণিক গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং বাকীদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এ রিপো’র্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তু’তি চলছিল।