বছরের শুরুতে জাতীয় দলে, শেষভাগে নেই কোথাও!

প্রকাশিত: ৪:৫৫ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০২০ | আপডেট: ৪:৫৫:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০২০

বিপিএলে দুর্দান্ত পা’রফরম্যান্সের পর বছরের শুরুতে যাকে আলাদাভাবে জাতীয় দলের ক্যা’ম্পে ডাকা হয়েছিলো, বছর শে’ষে তাকে একরকম ছুঁড়ে ফেললেন বিসিবি নির্বাচকরা। সতীর্থরা খে’লছেন চলমান বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে। কি’ন্তু পেসার মেহেদী হাসান রানার জায়গা হয়’নি কোনো দলে। অন্তত এইচপি দলে অনুশীলনের সু’যোগ চান এই পেসার। এদিকে নি’র্বাচকরা বলছেন, প্রেসিডেন্টস কা’পে বাদ পড়া ক্রিকেটাররাও নাকি আছেন প’রিকল্পনায়!

মেহেদী হাসান রা’না বলেন, প্রেসিডেন্টস কাপে জা’য়গা পাইনি। এ নিয়ে আ’ক্ষেপের কিছু নেই, হতাশার কিছু নে’ই। হয়তো জু’নিয়রদের সুযোগ দিতেই নির্বাচকরা এই সি’দ্ধান্ত নিয়েছেন।

কথা’গুলো বলতে হয়তো ঠোঁট কেঁপে উ’ঠছিলো রানার। হতাশা লুকানোর আ’প্রাণ চেষ্টায় তিনি জয়ী। বিসিবি নি’র্বাচকদের গুডবুকে ফেরার চে’ষ্টায় জয়ী হবেন তো!

প্রে’সিডেন্টস কাপের তিনটি দলই সাজিয়ে দি’য়েছে বিসিবি। এর আগে ঘোষিত হয় ২৫ স’দস্যের এইচপি দলও। কো’থাও হয়নি ঠাঁই। অথচ এ ব’ছর জানুয়ারিতে শেষ হওয়া বিপিএলের প’র মনে হয়েছিলো, নীতি নির্ধারকদের সু’নজরেই আছেন এই পেসার।

বি’পিএলের সবশেষ আসরে ১০ ম্যাচে সাড়ে ৭ ই’কোনমিতে ১৮ উইকেট নিয়ে সর্বোচ্চ উ’ইকেট শিকারির তালিকায় ৬’এ ছি’লেন মেহেদী হাসান রানা। বিপিএল শেষে জাতীয় দলের ক্যাম্পে ডে’কে নেয়া হয়েছিলো তাকে। এর পরপরই পা’কিস্তান ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সি’রিজে না হলেও, আ’ন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলার স্বপ্ন দেখতে থাকেন তিনি। ডিপিএলে এ মৌসুমে অনুষ্ঠিত একমাত্র রাউন্ডে প্রাইম দো’লেশ্বরের বিপক্ষে আবাহনীর জয়ের ম্যাচে ৪ উইকেট নিয়ে স্বপ্ন আরও ব’ড় হতে থাকে।

করোনা ম’হামারিতে হঠাৎ থেমে গেলো বিশ্ব। কোনো এক অজানা কারণে এ’ই সময়ে নির্বাচকরাও যেনো বেমালুম ভু’লে গেলেন ছন্দে থাকা এই পে’সারকে।

প্র’ধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, আ’পাতত পুলে যারা আছে তাদেরকে প্রাধান্য দে’য়া হচ্ছে। সামনে যে টুর্নামেন্ট আছে সে’খানে তো আরও ক্রিকেটার নেয়া হবে। এই টু’র্নামেন্টে ৪৮ জন আছে। ৫টা টিমের যখন খেলা হ’বে তখন তো ৭৫ থেকে ৮০ জন থাকবে। সবাই যেহেতু ব্যক্তিগত অনুশীলনেও আছে, যখন যাকে যেখানে দরকার ডেকে নিতে পারবো।

প্রেসি’ডেন্টস কাপে তামিম একাদশের স্ট্যান্ডবাই তালিকায় নাম ছি’লো রানার। কিন্তু ক’দিন আগে তা’মিমের দলের হো’য়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে নম্বরটি সরিয়ে ফে’লা হলে, রানা বুঝে যান এ আসরে আর খেলার সু’যোগ পাচ্ছেন না তিনি।

মে’হেদী হাসান রানা বলেন, অনেক দিন মা’ঠের বাইরে আছি। সামনে কর্পোরেট লি’গ কিংবা ডিপিএল- যে আসরই হোক, খেলার জন্য মুখিয়ে আছি। সুযোগ পে’লে শতভাগ দেয়ার চেষ্টা করবো। তবে, আ’পাতত বিসিবির কাছে আবেদন, গ’তবার যেমন আ’মাকে এইচপি দলের সঙ্গে অ’নুশীলনের সুযোগ দেয়া হয়েছিলো, এবারও সেটা দেয়া হোক। যা’তে বোলিংটা ঠিক রাখতে পা’রি।

ব্যক্তিগত ঐ’চ্ছিক অনুশীলন শুরুর পর নতুন উ’দ্যমে সবকিছু শুরু করতে চেয়েছিলেন। সে উ’দ্যমে ভাটা পড়লেও, আ’বারও নিজেকে গুছিয়ে নে’য়ার চেষ্টায় এই পেসার।