কলকাতায় চুরি হওয়া মোবাইল আসছে বাংলাদেশে!

প্রকাশিত: ১:৩১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৬, ২০২০ | আপডেট: ১:৩১:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৬, ২০২০

ক’লকাতার দুই হাজার টাকার চোরাই মো’বাইল বাংলাদেশে এনে তা বিক্রি হ’চ্ছে ২৫ থেকে ৩০ হাজার টা’কা পর্যন্ত।
বৃ’হস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) এ রকমই একটি মো’বাইল পাচারচক্রের সন্ধান পেল ক’লকাতা পুলিশের গো’য়েন্দা বিভাগ। এক বাং’লাদেশি নাগরিকসহ দু’জনকে আটক করা হ’য়েছে। তাদের কা’ছ থেকে উ’দ্ধার করা হয়েছে ১০৭টি বি’ভিন্ন কো’ম্পানির স্মা’র্টফোন।

ক”লকাতার স্থানীয় পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মধ্য ক’লকাতার আলিমুদ্দিন স্ট্রি’টের একটি গে’স্টহাউস থেকে জাহাঙ্গীর ও আবদুল গ’ফফর নামক ব্যক্তিকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। জা’হাঙ্গীর চট্টগ্রামের বাসিন্দা এবং তার সঙ্গী গফ্ফর ন’দিয়ার গাং’নাপুরের বাসিন্দা।

আ’টকদের কাছ থেকে পুলিশ জানতে পেরেছে, ক’লকাতা বা শহরতলিতে প্র’তিদিন যেসব মোবাইল ফোন চু’রি হয়, তা শহরের ক’য়েকটি নির্দিষ্ট চো’রাইবাজারে বিক্রি হয়। সেই বা’জারের সঙ্গে যো’গাযোগ রাখে এই বাং’লাদেশি চক্র।
তারা বন্দর এ’লাকায় এ রকম একটি চোরাই বাজার থে’কে এই মো’বাইলগুলো কিনেছিল।

আ’টকদ্বয় জানিয়েছে, কয়েকটি ব্র্যা’ন্ডের মোবাইলের দাম এ দে’শের তুলনায় বাং’লাদেশে প্রায় দ্বিগুণ। বাং’লাদেশে এসব মো’বাইলের চাহিদা অনেক। চোরাই বা’জার থেকে ওই ধরনের মো’বাইল ২ থেকে ৫ হাজার টাকায় কি’নে নিয়ে যায় বাং’লাদেশি পা’চারকারীরা।
বাং’লাদেশে ওই মোবাইলের বাইরের অং’শ কিছুটা পরিবর্তন করে বিক্রি ক’রা হয় ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকায়। ক’য়েক বছর আগে ক’লকাতা পুলিশের স্পে’শ্যাল টাস্কফোর্স এ রকম প্রা’য় ৩৫০টি মোবাইল উ’দ্ধার করেছিল।
ক’লকাতা পুলিশের এক গো’য়েন্দা কর্মকর্তা বলেন, আ’মাদের এখানে যে মো’বাইল চুরি হচ্ছে তা বাংলাদেশে চলে গে’লে আমরা উ’দ্ধার করতে পারছি না। অন্য এ’কজন ক’র্মকর্তা বলেন, এই চোরাই মো’বাইল সীমান্ত পেরিয়ে কো’নও জঙ্গি দলের স’দস্যদের কাছে পৌঁ’ছলে সেটা আরও চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁ’ড়ায়। এ বাং’লাদেশিরা কোনো কা’গজপত্র ছাড়াই নদিয়া সী’মান্ত দিয়ে ঢু’কেছিল। এই দেশে গ’ফফর নামক এ’জেন্ট আছে।