যুবলীগ সেক্রেটারিকে কলেজ সভাপতি করায় অধ্যক্ষকে লাঞ্ছিত

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১০:৫৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮ | আপডেট: ১০:৫৭:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮
যুবলীগ সেক্রেটারিকে কলেজ সভাপতি করায় অধ্যক্ষকে লাঞ্ছিত

নাটোরের কাফুরিয়া ডিগ্রি কলেজে জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদককে গভর্নিং বডির সভাপতি করায় আজ কলেজে সকল ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সামনে কলেজের অধ্যক্ষ এস এম সাইদুর রহমানকে শারিরীকভাবে লাঞ্ছিত করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতার ছেলে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের নাটোর জেলা সভাপতি শাহআলমও তার বন্ধুরা। এ ঘটনায় নাটোর থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নাটোর সদর থানা সূত্রে জানা গেছে, নাটোর সদরের কাফুরিয়া ডিগ্রি কলেজ গভর্নিং বডির মেয়াদ শেষ হওয়ায় নতুন কমিটি গঠন করা হয়। নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. শফিকুল ইসলাম শিমুলের নির্দেশে জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন বিপ্লবকে গভর্নিং বডির সভাপতি করা হয়।

এ খবর জানাজানি হলে স্থানীয় কাফুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা ইলিয়াস হোসেনের ছেলে শাহআলম, একই গ্রামের আবুল হোসেন ও মো. হারুন এবং একই এলাকার দস্তানাবাদ গ্রামের বাচ্চুমিয়াসহ ২০-২৫ জন আজ সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কলেজে আসেন। তারা শত শত ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সামনেই অধ্যক্ষের অফিসে গিয়ে তাকে প্রথমে গালাগালি করে। পরে এক পর্যায়ে তাকে টেনে হিচড়ে কলেজ থেকে বের করে দেয়।

বিষয়টি তিনি তাৎক্ষনিক নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. শফিকুল ইসলাম শিমুল এবং জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন বিপ্লবকে জানিয়েছেন। পরে তাদের পরামর্শে নাটোর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের নাটোর জেলা সভাপতি শাহআলম বলেছেন, তার এই প্রতিষ্ঠানে সভাপতি হওয়ার কথা ছিল, স্থানীয় সংসদ সদস্য এ বিষয়ে ডিও লেটারও দিয়েছিল। তাকে না জানিয়ে যুবলীগ সেক্রেটারীকে সভাপতি করে কমিটি গঠন হয়ে গেছে এমন সংবাদ পেয়ে সঠিক বিষয় কী তা জানার জন্য তিনি কলেজে গিয়েছিলেন। সেখানে কাউকে শারিরীক ভাবে লাঞ্চিত করার অভিযোগ সত্য নয়।

  • বিডি প্রতিদিন