মধুপুরে চোরাই বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু। 

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১:১৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০ | আপডেট: ৪:১৬:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০

টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলের মধুপুরে অবৈধভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে গিয়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। মধুপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন অফিসার দেলোয়ার হোসেন জানান,   শুক্রবার( ১৮সেপ্টেম্বর ২০)ইং বিকেল চারটার সময় মধুপুর উপজেলার গোলাবাড়ী গ্রামের চাকন্ড তকিপুর গ্রামের কিতাব আলী নামের ছেলে ফারুক হোসেন (২৫) কে একই গ্রামের হাজী মোজাম্মেল হকের ছেলে সামান আলী মুদি ব্যবসায়ী তিনি তার ঘরের মিটারের অবৈধ সংযোগ দেওয়ার জন্য ফারুক কে ডেকে নিয়ে যায়।

তারপর তাকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার জন্য খুটির উপরে তুলে দেন। সেখানে সংযোগ দেয়ার সময় বিদ্যুতের ২৩০ বোল্টের তারের সাথে  সাথে আটকা পড়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে মারা যান ফারুক।  নিহত ফারুক এর একটি কন্যাসন্তান রয়েছে। ফারুক তার মা বাবার ছোট তৃতীয় ছেলে।  এ ব্যাপারে নিহতের বাবা কিতাব আলী জানান এই ঘটনার আমি সঠিক বিচার চাই।

এই ঘটনায় মধুপুর পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম বিপ্লব কুমার জানান, পল্লী বিদ্যুতের খুঁটিতে অবৈধভাবে চোরাই  সংযোগ দেওয়ার সময় ফারুক হোসেন নামের এক যুবক মারা গেছে। তাকে একই এলাকার সামান আলী নামের এক মুদি দোকানদার তার মিটারে চোরাই সংযোগ দেওয়ার জন্য ফারুক কে বিদ্যুতের খুঁটি উপরে উঠিয়ে দেন। সম্পূর্ণভাবে  তারা চোরায় বিদ্যুৎ সংযোগ করতে চেয়েছিল। যা সম্পূর্ণ বেআইনি ঘটনায় সঠিক বিচার হওয়া দরকার।

মধুপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার দেলোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান,  আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসীর কাছে  জানতে পেরেছি  বিদ্যুতের তারে আটকা পড়া নিহত ফারুকের নিথর দেহ স্থানীয়রা  বাঁশের লাঠি দিয়ে   নিচে নামিয়ে ফেলেছে। এসময় এলাকাবাসী আরো জানান,  সালমান আলীর মিটারে  অবৈধভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার সময় ফারুককে দিয়ে সংযোগ দেওয়ার জন্য বৈদ্যুতিক খুঁটিতে উঠিয়ে দেয় তাৎক্ষণিকভাবেই বিদ্যুতের তারের সাথে ফারুকের হাত জড়িয়ে পড়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে ঘটনাস্থলেই ফারুক মারা যায়। এ ঘটনায় সঠিক বিচার হওয়া দরকার দোষী ব্যক্তির। এলাকাবাসী ও প্রত্যেক্ষদোষীরা এঘটনায় দোষী ব্যাক্তির উপযুক্ত শাস্তি দাবী করেন।