জগন্নাথপুরে গ্রামীণ রাস্তার বেহাল দশা, হুঁশ নেই কর্তাদের: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তোলপাড় জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ)

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

এডিটর প্যানেল

প্রকাশিত: ৯:৪৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০ | আপডেট: ৯:৪৭:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের গন্ধর্ব্বপুর গ্রামের ভিতরের রাস্তা সংস্কারের অভাবে চরম বেহাল দশা দেখা দিয়েছে। গোটা রাস্তায় অংসখ্য খানাখন্দ তৈরি হয়েছে। সাম্প্রতিক বর্ষণে ওই সব গর্তে জল জমে প্রায় ডোবায় পরিণত হয়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। যাতায়াত করাই দুষ্কর।
জানা যায়, ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ গ্রামে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধী দল ও সরকারী দলে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বপালন করছেন নেতারা। প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে কমবেশী কয়েক হাজার মানুষ যাতায়াত করেন। চলে অংসখ্য রিক্স ও প্রাইভেট যানবাহন। খানাখন্দে ভরপুর রাস্তাটিতে হাসমেশাই ঘটছে ছোটখাট দুর্ঘটনা। বেহাল রাস্তাটি অবিলম্বে সংস্কারের দাবি তুলেছেন স্থানীয় মানুষজন। গত কয়েক দিন ধরে গন্ধর্ব্বপুর গ্রামের জনসাধারন সহ শিক্ষার্থীরা রাস্তার বেহাল দশা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পেষ্ট করেন।
গন্ধর্ব্বপুর গ্রামের জনসাধারন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করে লেখেন, এটাই হচ্ছে বিগত ১৫ বছরের উন্নয়ন এর ছোয়া। কিছু পাই আর না পাই, আমরা পেয়েছি ক্ষমতাসীন দলের ইউপি, উপজেলার অনেক পদ পদবী আর কি পাওয়ার আছে। পদ পদবীর জন্য নেতারা লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করতে আগ্রহী আর গ্রামের রাস্তা বেহাল দশা দেখার মত নাই, আছে শুধু খাই খাই। অনেকেই লেখেন আমরা পদ পদবিতে বিশ্বাসী উন্নয়নের বিশ্বাসী নয়। পদ ছেড়ে যদি উন্নয়নের কাজে মনোযোগী হতাম তাহলে আমাদের গ্রামের রাস্তার সমস্যা থাকতো না।
এ ব্যাপারে গ্রামের অনেক নেতার সাথে আলাপ করে জানা যায়, সকলেই নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করে যাচ্ছি। মন্ত্রী মহোদয়ের ডিও লেটারও এনেছি। কিন্তু কেন কাজ হচ্ছেনা তারা জানেন না। আবার অনেক নেতা এ বিষয়ে মন্তব্য করতে নারাজ। রাস্তার কাজের বিষয়ে জানতে রানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম রানা মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে ফোনে আলাপ করা সম্ভব হয় নাই।
সামান্য বৃষ্টিতেই এসব রাস্তায় তৈরী হয় ছোটখাটো গর্ত। বর্ষার পানি আর গাড়ির চাকার ঘর্ষণে এসব গর্ত সৃষ্টি হচ্ছে বলে জানান স্থানীয়রা। সড়কটি দ্রুত সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।