অবসান হলো বিমানবন্দরে স্বামীকে নিয়ে দুই স্ত্রী’র দ্বন্দ্বের

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১১:১৯ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৫, ২০২০ | আপডেট: ১১:১৯:পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৫, ২০২০

# অবশেষে স্বামীকে নিয়ে দুই স্ত্রী’র দ্বন্দ্বের অবসান হলো। দ্বিতীয় স্ত্রী’র ভাগ্যেই জুটলেন, মালদ্বীপ প্রবাসী স্বামী মাঈনুল।সোমবার (২৪ আগস্ট) কুমিল্লায় এক গ্রাম্য সালিশে, প্রথম স্ত্রী’কে তালাক দেন তিনি। সমাধান হওয়ায়, সব পক্ষই সন্তুষ্ট। কদিন আগে দেশে ফিরে বিমানবন্দরেই দুই স্ত্রী’র টানাহেঁচড়ার মধ্যে পড়েন মাঈনুল

# গত ১৮ আগস্ট বিকেলে বিদেশ ফেরত স্বামীকে নিয়ে টানা-হেঁচড়া শুরু করেন ২ স্ত্রী’। মালদ্বীপ থেকে প্রবাসী মাঈনুল দেশে ফিরে শাহ’জালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে নিজ বাড়ি কুমিল্লা যাওয়ার জন্য ভাড়া গাড়িতে উঠে বসলেই টেনে নামানোর চেষ্টা করে তার প্রথম স্ত্রী’ সানজিদা।

# তার দাবি, ৭ বছর আগে তাদের বিয়ে হলেও তাকে না জানিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেন তার স্বামী।মাইনুলের দ্বিতীয় স্ত্রী’ তমা’র দাবি, তিনিই প্রথম স্ত্রী’। স্বামীকে তার বাড়িতে নিয়ে যেতে হাতাহাতি শুরু করেন সানজিদার সাথে।আইনগতভাবে বিচ্ছেদ না হলেও সানজিদা ও তার ৩ বছরের শি’শুর কোনো ভরণপোষণ দেন না মাঈনুল। সানজিদাকে প্রথম স্ত্রী’ হিসেবে স্বীকার করলেও তার সাথে আর সংসার করতে চান না বলেও জানান মাঈনুল।

# অবশেষে গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমে বিষয়টি মিটমাট হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে স্থানীয়দের নিয়ে গ্রাম্য সালিশে বসেন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান।সবার উপস্থিতিতে মাঈনুল তার প্রথম স্ত্রী’ সানজিদার সাথে থাকতে না চাওয়ায় তাকে তালাক দেন।ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মামুনুর রশীদ বলেন, মাইনুল তার প্রথম স্ত্রী’কে নিয়ে ঘর-সংসার করতে রাজি না হওয়ায় আম’রা সিদ্ধান্ত নিয়ে দুই স্ত্রী’কে আলাদা করে দিয়েছি।

# মাঈনুলের চাচা আলী আহমেদ মিয়াজী বলেন, প্রথম স্ত্রী’কে ইস’লামী শরীয়া মোতাবেক ডিভোর্স দেওয়া হয়েছে এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে সফলভাবে আজকের রায় কার্যকর হয়েছে।

# দুই বউও অবশেষে মেনে নিয়েছেন সালিশের রায়।প্রথম বউ সানজিদা বলেন, আমাদেরকে সমাধান করে দিয়েছে। আমা’র ভাগ্যে ছিল না, তাই আমি পাই নাই।দ্বিতীয় বউ তমা বলেন, আমি অনেক খুশি আমা’র স্বামীকে আমি অবশেষে পেয়েছি।শেষ পর্যন্ত মাঈনুল জুটলেন দ্বিতীয় বউয়ের ভাগ্যে। শেষ পর্যন্ত অবসান ঘটলো আ’লোচিত দুই স্ত্রী’ এক স্বামীর গল্পের।