জগন্নাথপুরে ২য় দফা বন্যায় গ্রামীণ সড়কে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৬:৩২ অপরাহ্ণ, জুলাই ২০, ২০২০ | আপডেট: ৬:৩২:অপরাহ্ণ, জুলাই ২০, ২০২০

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে বন্যায় গ্রামীণ সড়কগুলো বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। পর পর দুইবার বন্যায় গ্রামীণ রাস্তা ঘাট ভেঙ্গে জনসাধারনের অনুযোগী হয়ে পড়েছে। বন্যায় ৯ কোটি টাকার উপরে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ।

জানা যায়, অব্যাহত বৃষ্টিপাতে ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ৮টি ইউনিয়নে প্রায় সবকয়টি রাস্তার উপর দিয়ে বানের পানি চলাচল করে। প্রথম দফায় উপজেলার নিম্নাঞ্চলের প্লাবিত হলেও ২য় দফায় প্রায় সবকয়টি রাস্তার উপর দিয়ে বন্যার পানি চলাচল করে পানির স্রোতে রাস্তা ভেঙ্গে যায়।

উপজেলা প্রকৌশলী কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, অতিবৃষ্টি ও বন্যার জগন্নাথপুরের ১৬টি সড়কে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ সড়কগুলো হচ্ছে- জগন্নাথপুর-স্বজনশ্রী ভায়া চিলাউড়া সড়ক, সৈয়দপুর-সনাতনপুর ভায়া তেঘরিয়া সড়ক, রানীগঞ্জ-হলিকোণা ভায়া স্বজনশ্রী সড়ক, চিলাউড়া বাজার-পুঞ্জি সড়ক, শিবগঞ্জবাজার-রানীগঞ্জ ইউপি সড়ক, কাঠালখাই বাজার-দাওরাই ইউপি ভায়া জয়দা সড়ক, জগন্নাথপুরের শিবগঞ্জ-পাইলগাঁও-বেগমপুর সড়ক, হলিমপুর-করিমপুর সড়ক, জগন্নাথপুর-হবিবপুর মাঝপাড়া সড়ক, প্রভাকরপুর-নন্দিরগাঁও সড়ক, শাহারপাড়া বাজার-শ্রীরামসী বাজার ভায়া পীরের বাজার সড়ক,কেশবপুর-রসুলগঞ্জ বাজার ভায়া এরালিয়া সড়ক, শ্রীরামসী-মিয়ারবাজার সড়ক, লুদুরপুর-সৈয়দপুর সড়ক, ও জগন্নাথপুর-খাদ্য গুদাম সড়ক, রানীগঞ্জ দক্ষিণপাড়- রৌয়াইল সড়ক। এছাড়াও বন্যায় ইকড়ছই-চিলাউড়া সড়কের মইয়ার হাওরের ঢেউয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

উপজেলার জনসাধারন জানান, মইয়ার হাওরের ঢেউয়ে ইকড়ছই-চিলাউড়া সড়কের অধিংকার স্থানে ভাঙন সৃষ্টি হয়েছে। কিছু অংশে উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে মেরামত হলেও তা কার্যত সুফল মিলছে না। এ সড়কে দ্রুত সংস্কার করা না হলে উপজেলা সদরের সঙ্গে চিলাউড়া ইউনিয়নবাসীসহ পৌর এলাকার একাংশের জনসাধারণের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এ ছাড়াও রানীগঞ্জ দক্ষিণ পাড়-রৌয়াইল সড়ক ভেঙ্গে জনসাধান চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে যাতায়াতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন এলাকাবাসী।
জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) গোলাম সারোয়ার জানান, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তাগুলোর তালিকা করা হয়েছে। পানি নেমে গেলে ইমারজেন্সি প্যাকেজ করে মেরামত করা হবে। আমরা প্রাথমিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির তালিকা তৈরি করেছি। বন্যায় সড়কে ৯ কোটি টাকার উপরে ক্ষতি হয়েছে।##