মাদারীপুরে মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকি

নাজমুল হক নাজমুল হক

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক

প্রকাশিত: ২:০৭ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২০ | আপডেট: ১১:০৬:পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২০

মাদারীপুর সদর উপজেলার মস্তফাপুর ইউনিয়নে মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকি দিচ্ছে মামলার আসামীরা। সোমবার রাতে বাদী কোহিনুর বেগম (৪৫) জানান, আমার স্বামী আবুল হোসেন দর্জিকে গত ১১/০৭/২০২০ তারিখ সন্ধায় সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এঘটনায় আমি বাদী হয়ে মাদারীপুর সদর মডেল থানায় রকমান মাদবর,রশীদ মাদবর, সাদ্দাম মাদবর, জহুরুল মাদবর, শফিকুল মাদবর, তাছলিমা বেগমসহ ছয় জনের নাম উল্লেখ করে একটা মামলা দায়ের করি। মামলা নং ২১, তাং ১৩/০৭/২০২০ খ্রিঃ ধারা – ১৪৩/৩২৩/৩২৫/৩২৬/৩০৭/৩৭৯/৫০৬/১১৪ পেনাল কোড।

তিনি আরো বলেন, মামলা হওয়ার সাথে সাথেই পুলিশ আসামি রশিদ মাদবর ও সাদ্দাম মাদবরকে গ্রেফতার করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মামলার ১নং আসামীসহ অন্য আসামীরা আমাদের বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিচ্ছে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য। আমরা খুব আতংকের মধ্যে আছি।

মামলার বিবরণে জানা যায়, মস্তফাপুর ইউনিয়নের চতুর পাড়া গ্রামের আবুল হোসেন দর্জীর সাথে একই এলাকার রকমান মাদবরের সাথে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দ্বন্দ্ব ছিলো।পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত ১১/০৭/২০২০/ তারিখ আনুমানিক সন্ধা ৭.৩০ মিনিটের সময় আবুল হোসেন দর্জী মস্তফাপুর বাজার থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়া হয়ে মস্তফাপুর বড় ব্রিজের উত্তর পার্শ্বে বাদল হাওলাদারের দোকানের সামনে পৌছালে ওৎ পেতে থাকা রকমান মাদবরসহ ৯/১০ জন মিলে আবুল হোসেন দর্জীকে কুপিয়ে জখম করে। এছাড়াও নগদ টাকা ও স্বর্নের আংটি ছিনিয়ে নেয়। এলাকাবাসী আহতকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করান।
এঘটনায় আহত আবুল হোসেন দর্জীর স্ত্রী কোহিনুর বেগম বাদী হয়ে সদর থানায় মামলা করেন।

 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আমিনুল ইসলাম বলেন, মামলা হওয়ায় সাথে সাথেই দুজনকে গ্রেফতার করেছি। চেষ্টা করছি আমরা খুব তাড়াতাড়ি বাকি আসামীদেরকেও গ্রেফতার করবো।

জিএম/নাজমুল