করোনা পরিস্থিতিতে এনএটিপি-২ (প্রানিসম্পদ) কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করলো জাতিসংঘ

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৮:০৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০২০ | আপডেট: ৮:০৭:অপরাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বিশ্বব্যাপী করোনা পরিস্থিতি দিন দিন খারাপের দিকেই যাচ্ছে। সারাবিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও করোনা পরিস্থিতি আশঙ্কাজনক। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে স্বাভাবিকভাবে দেশের প্রাণিসম্পদের উন্নয়নে চলমান ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল এন্ড টেকনোলজি প্রোগ্রাম -২ (প্রাণিসম্পদ অঙ্গ) এর কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেছে জাতিসংঘ।

বৃহস্পতিবার ( ৯ জুলাই ২০২০ ইং) সংস্থাটির বাংলাদেশ অফিস থেকে সোস্যাল মিডিয়ায় পাঠানো এক বার্তা থেকে এ তথ্য পাওয়া যায়।

সংস্থাটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর এগ্রিকালচালার ডেভোলপমেন্ট (আই এফ আই ডি) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাথে যৌথভাবে দেশের ডেইরী খামারীদের সহযোগিতা করে চলেছে। যেখানে খামারীরা নিয়মিতভাবে গবাদি প্রানির ভ্যাকসিনেশন, নিঊট্রিশন এবং কৃমিনাশক ওষুধ পাচ্ছেন। ফলে প্রান্তিক খামারীরা উন্নত প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে উৎপাদন বৃদ্ধি করে দেশের খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিতকরন করছে।

সারাদেশে একযোগে চলমান এ প্রকল্পের মাধ্যমে সাধারন খামারীরা নিয়মিত ভাবে প্রাণিসম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তার মাধ্যমে বিভিন্ন প্রযুক্তির ছোয়া ঘরে বসেই পাচ্ছেন। প্রাণিসম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তাগন নিরলসভাবে প্রাণিসম্পদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। করোনা পরিস্থিতিতেও নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করছেন।

প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা মো আবদুল জব্বার শিকদার বলেন, ” ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল এন্ড টেকনোলজি প্রোগ্রাম -২ (প্রাণিসম্পদ অঙ্গ) প্রকল্পটি প্রান্তিক খামারিদের উন্নয়নে কার্যকরি ভুমিকা পালন করছে”

ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল এন্ড টেকনোলজি প্রোগ্রাম -২ (প্রাণিসম্পদ অঙ্গ) এর প্রকল্প পরিচালক ডা মনজুর মোহাম্মদ শাহজাদা বলেন, ” মুলত দুইটি লক্ষ্য নিয়ে এ প্রকল্পের যাত্রা শুরু হয়, সেটা হলো উৎপাদন বৃদ্ধি ও বাজার সৃষ্টি করা”

বাংলাদেশ ভেটেরিনারি এসোসিয়েশন (বিভিএ) মহাসচিব  মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান মোল্লা বলেন, ” করোনা পরিস্থিতিতে সম্মুখ সারির যোদ্ধা হিসেবে ভেটেরিনারিয়ান বৃন্দ দেশের প্রান্তিক খামারীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। এন এ টিপি -২ (প্রাণিসম্পদ অঙ্গ) দেশের প্রান্তিক খামারীদের পাশে থেকে যুগোপযোগী প্রযুক্তির মাধ্যমে প্রাণিসম্পদের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে”

লাইভস্টক এক্সটেনশন অফিসার্স এসোসিয়েশন (এন এ টিপি-২) এর সভাপতি ডা মো ইনাম আহমেদ বলেন, ” আমরা সারাদেশের এক্সটেনশন অফিসারগন সর্বদা প্রান্তিক পর্যায়ের খামারীদের উন্নয়নের সাথে সাথে দেশের সামগ্রিক প্রাণিসম্পদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি ”

উল্লেখ্য বিশ্ব ব্যাংক, ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর এগ্রিকালচালার ডেভোলপমেন্ট (আই এফ আই ডি), ইউএস আইডির যৌথ অর্থায়নে ২৭০ টি উপজেলায় চলমান এ প্রকল্প আগামী ২০২৩ সাল পর্যন্ত চলবে।

 

See the link for details —  United Nations in Bangladesh

https://www.facebook.com/uninbangladesh/?tn-str=k*F&hc_location=group_dialog