রাজাপুরে প্রান্তিক কৃষকের কাছ থেকে সেনা সদস্যদের সবজি ক্রয়

প্রকাশিত: ৭:৪৩ অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০২০ | আপডেট: ৭:৪৩:অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০২০

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে ঝালকাঠির রাজাপুরের কৃষকরা তাদের সবজির ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় তাদের কাছ থেকে ন্যায্যমূল্যে বিভিন্ন প্রকারের সবজি ক্রয় করেছেন সেনাবাহিনীর সদস্যরা। মঙ্গলবার দুপুরে সাত পদাতিক ডিভিশন শেখ হাসিনা সেনানিবাস এর উদ্যোগে ও ২২ ইঞ্জিনিয়ার ব্যাটালিয়ন এর ব্যবস্থাপনায় উপজেলার সদর ইউনিয়নের পূর্ব আংগারিয়ার নদীর পারে মোসাঃ রিজিয়া বেগমের সবজি ক্ষেত থেকে তারা টাটকা সবজি ক্রয় করেন। পর্যায় ক্রমে সবার কাছ থেকে সবজি ক্রয় করা হবে। সবজির মধ্যে রয়েছে ঢেঁরস, কাঁচা মরিচ, পেপে, জিঙ্গা, মিষ্টি কুমড়া, জালি কুমড়া, বরবটি।
চাষী মোসাঃ রিজিয়া বেগম জানান, তিনি ৫০ শতক জমিতে বিভিন্ন প্রকারের সবজির চাষ করেছে। ১২ মাস তিনি সবজি বিক্রয় করে তার সংসার চালান। করোনা ভাইরাসের কারনে তার সবজি বিক্রয় না হওয়ায় ক্ষেতেই নষ্ট হয়ে যাচ্ছিল। এসময় ন্যায্যমূল্যে সেনাবাহিনী তার কাছ থেকে সবজি ক্রয় করায় সে খুব খুশি হয়েছে।
২২ ইঞ্জিনিয়ার ব্যাটালিয়ন এর কর্মকর্তা মেজর মোঃ সাইদ জানান, আমরা সেনাবাহিনীর সদস্যরা সাত পদাতিক ডিভিশন শেখ হাসিনা সেনানিবাস থেকে এখানে এসেছি। আমরা খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি করোনা ভাইরাস এর এই দুর্যোগকালীন সময় গ্রাম অঞ্চলের প্রান্তিক চাষীরা ন্যায্যমূল্যে সবজি বিক্রয় করতে পারছেন না। মধ্যসত্বভোগীরা তাদের কাছ থেকে কম মূল্যে ক্রয় করে শহরে নিয়ে তারা বেশি মূল্যে বিক্রয় করছেন। ন্যায্যমূল্য থেকে প্রান্তিক চাষীরা বঞ্চিত হচ্ছেন। এ কারনে আমরা রিজিয়া বেগমের কাছ থেকে বিভিন্ন ধরনের সবজি ক্রয় করেছি। আমরা শুধু এই অঞ্চলেই নয় বরিশাল বিভাগের অন্য অঞ্চলেও আমাদের এ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।