জনগনের দুঃসময়ে যারা মানুষের পাশে দাঁড়ায় না তারা প্রকৃত রাজনীতিবীদ নয়- হুইপ ইকবালুর রহিম

এন.আই.মিলন এন.আই.মিলন

দিনাজপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৫:০০ অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০২০ | আপডেট: ৫:০০:অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০২০

এন.আই.মিলন, দিনাজপুর প্রতিনিধি- জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন পর্যন্ত দেশের মানুষের জন্য কাজ করে যাবেন। তিনি থাকতে দেশের যে কোন দুর্যোগকালে কেউ না খেয়ে থাকেনি, ভবিষ্যতেও থাকবে না। প্রধানমন্ত্রী ঘরে ঘরে খাদ্য পৌছে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। অসহায় ও দরিদ্ররা যেন অভাব বুজতে না পারে সে জন্য ১০ টাকা কেজি চাল ও ১৮ টাকা কেজি দরে আটা দেয়া হচ্ছে। পর্যাপ্ত পরিমান খাদ্য মজুদ রয়েছে। সরকারের খাদ্য নিরাপত্তার আওতায় ৬ কোটি মানুষকে খাদ্য সহায়তা দেয়া হচ্ছে। ৫০ লাখ মানুষকে ২৫০০ টাকা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মোবাইল ব্যাংককিং এর মাধ্যমে অর্থ প্রদান করেছেন।

তিনি বলেন, বিএনপি এসব দেখে আবল-তাবোল বকছে। তারা নিজেরাই অসহায় মানুষের পাশে না থেকে উস্কানিমুলক বক্তব্য দিচ্ছে। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে খালেদা-তারেক হাওয়া ভবন সিন্ডিকেট করে হাজার হাজার কোটি টাকা আত্মসাত করেছেন এবং বিদেশেও পাচার ও বাড়ী গাড়ির মালিক হয়েছেন। আজকে দুঃসময়ে খাদ্য সহায়তা নিয়ে তারা জনগনের পাশে নেই। তাদের ত্রান ও খাদ্য সহযোগিতা মিডিয়ার মধ্যে সীমাবদ্ধ। জনগনের দুঃসময়ে যারা মানুষের পাশে দাঁড়ায় না তারা প্রকৃত রাজনীতিবীদ নন। তাদেরকে ভবিষ্যতে চিহিৃত করে রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, করোনা ভাইরাস থেকে একদিন আমরা স্বাভাবিক জীবন ফিরে পাবো ইনশাল্লাহ। সেজন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে ঘরে থাকার আহবান জানান।

দিনাজপুর কেবিএম কলেজ প্রাঙ্গনে ১৯ মে মঙ্গলবার করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় ও দরিদ্র প্রায় ৫০০ ভ্যান চালকদের মাঝে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার খাদ্য সামগ্রী বিতরনকালে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি এ সব কথা বলেন। এ ছাড়া তিনি দিনাজপুর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স জেলা শাখা ও বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পরিষদ জেলা শাখার উদ্যোগে অসহায়, বেকার, বেতন হীন ডিপ্লোমা প্রকৌশলী, নির্মাণ শ্রমিক ও দু:স্থ মানুষের মাঝে ত্রান, তফিউদ্দিন মেমোরিয়াল স্কুলে ও আউলিয়াপুর ইউনিয়নে ত্রান সামগ্রী বিতরন করেন।

পৃথক পৃথক অনুষ্ঠানে এ সময় উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ইমদাদ সরকার, বিশিষ্ঠ চক্ষু বিষেশজ্ঞ ডাক্তার মোঃ শহিদুল ইসলাম খান, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার লোকমান হাকিম, মুক্তিযোদ্ধা আকবর আলী, দিপই অধ্যক্ষ ওয়াদুদ মন্ডল, শহর আ’লীগের সাধারন সম্পাদক খালেকুজ্জামান রাজু, আইডিইবির সভাপতি মতিউর রহমান, সাধারন সম্পাদক আব্দুল আউয়াল, সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলাম, পি ডাব্লিউ ডি’র এসডিই দিলদার আহমেদ, আলহাজ্ব সাইফুল ইসলাম, আওয়ামীলীগ নেতা এ্যাড. জাকির হোসেন, আওয়ামীলীগ নেতা মাজেদুর রহমান ডাব্লু, সাদেকুল ইসলাম প্রমুখ।