ই,তালিতে ক,রোনা : ভয়াব,হ বিপর্যয়ের মধ্যে আশার আলো

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ, মে ২, ২০২০ | আপডেট: ১১:৪৪:পূর্বাহ্ণ, মে ২, ২০২০

ইসমাইল হোসেন স্বপন, ই,তালি:

প্রাণ,ঘাতি ক,রোনার থাবায় বিপর্যস্ত ই,তালি যেন এক মৃতনগরী। তবে এবার ক,রোনা ভাইরাসের এই কালো মেঘেও উজ্জ্বল আলোকরেখা ই,তালিতে। সেইসঙ্গে শোনা যাচ্ছে কিছু আশার পূর্বাভাস, ই,তালিতে দুর্বল হচ্ছে ক,রোনা।

 

খুব শীঘ্রই স্বাভাবিক ছন্দে ফিরবে ই,তালি। আগামী ৪ই মে লকডাউন শিথিল হবে। দেশটির বিভিন্ন অঞ্চলে পুনরায় ছন্দ ফিরে আসবে। মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা কমে ক্রমশ বাড়ছে সুস্থতার সংখ্যা। প্রতিদিন সুস্থ হয়ে হাস,পাতাল ছাড়ছেন রেকর্ড সংখ্যক ক,রোনা রোগী।

গত ২৪ ঘন্টায় দেশটিতে সুস্থ হয়ে হাস,পাতাল ছেড়েছেন দুই হাজার ৩৪৯ জন ক,রোনা রোগী। এ নিয়ে দেশটিতে ক,রোনা থেকে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ৭৮ হাজার ২৪৯ জন।
দেশটির নাগরিক সুরক্ষা সংস্থা জানিয়েছে, মহামারী ক,রোনায় গত একদিনে মৃতের সংখ্যা ২৬৯ জন বেড়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে কিছুটা কম। এই সময়ে নতু,ন সংক্রমণের সংখ্যা ১ হাজার ৯৬৫ জন।
গত ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে ক,রোনা প্রাদুর্ভাব শুরুর পর এখন পর্যন্ত ই,তালিতে মৃতের সংখ্যা ২৮,২৩৬।
আর আক্রান্ত দুই লাখ ৭ হাজার ৪২৮ জন।
এদিকে মহামারী কোভিড – ১৯ ভাইরাস পুরোপুরি নিয়ন্ত্রন না করে লকডাউন শিথিলের ঘোষণা করায় সরকার ও বিরোধী দলের মধ্যে চলছে নানা বিতর্ক।
দেশটির বিভিন্ন এলাকায় খুলতে শুরু করেছে দোকানপাট, রেস্টুরেন্ট। বই, স্টেশনারি, বাচ্চাদের জামা কাপড়ের দোকান খুলছে। এছাড়া কম্পিউটার ও কাগজপত্র তৈরির কাজ শুরুর অনুমতি দেওয়া হয়েছে।
আগামী ৪ মে থেকে ই,তালিকে শিথিল হতে যাচ্ছে লকডাউন। দেশটির বিভিন্ন অঞ্চলে সীমিত আকারে উৎপাদন শিল্প, নির্মাণ খাত ও পাইকারি দোকান পুনরায় চালুর প্রক্রিয়া শুরু হতে যাচ্ছে।