শিগ্রই পৃথিবীতে শুরু হবে প্রকৃতির মহাতা’ণ্ডবঃ গবেষণা

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৭, ২০২০ | আপডেট: ১২:২৯:পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৭, ২০২০

বর্তমান সময়ে একের পর এক দু’র্যোগ আসছে পৃথিবীতে এরই মাঝে জানা গেল যে হারে গ্রিন হাউজ গ্যাস নিঃসরণ হচ্ছে, তাতে ২০৩০ সালের মধ্যে গড় তাপমাত্রা বৃদ্ধির হার ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি হয়ে যাবে। এমনটাই জানিয়েছে, ইন্টারগভর্নমেন্টাল প্যানেল ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ বা আইপিসিসি। ভূ-পৃষ্ঠের তাপমাত্রার ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি সমুদ্রে পানির উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য যথেষ্ট এবং তার ফলে বিশ্বজুড়ে ভ’য়াবহ ঝড়, ব’ন্যা এবং খরা দেখা দিতে পারে।

সাগর উষ্ণ হলে সেখানে বাস করা প্রা’ণীদের জীবনযাত্রায় ব্যাপক পরিবর্তন আসে। মাছসহ বিভিন্ন জলজ প্রা’ণীর জলের তাপমাত্রা বাড়ার ফলে নিজেদের বাসস্থান বদলাতে বাধ্য হচ্ছে। তাপমাত্রা বাড়ার ফলে পানিতে কার্বন ডাই অক্সাইডের মাত্রা বাড়ে। এর ফলে, সাগরের পানিতে অ্যাসিডের পরিমাণ বাড়তে থাকে। এই বাড়ন্ত অ্যাসিডের জন্য মা’রা যাচ্ছে বেশ কিছু দুর্লভ প্রা’ণী, নানা প্রজাতির শ্যাওলা।

পানি গরম হলে সেখানকার অক্সিজেনের মাত্রা কমতে থাকে। উষ্ণায়নের ফলে বাড়ন্ত তাপমাত্রা বিশ্বজুড়ে সাগর, নদী ও হ্রদকে করে তুলছে বিষাক্ত, অ্যাসিডযু’ক্ত। সাথে অক্সিজেনের মাত্রা কমায় প্রা’ণীরা নিঃশ্বা’স নেবার জন্য পর্যাপ্ত অক্সিজেন পায় না। গরম, অক্সিজেনহীন জলে বিষাক্ত শ্যাওলা জন্ম নেয়। এর আগে চিলির উপকূলে লাল রঙের বি’ষাক্ত শ্যাওলা বাড়ার ফলে হাজার হাজার মাছ মা’রা যায়। এমন জিনিস ভবিষ্যতে অন্যান্য জায়গাতেও দেখা যেতে পারে বলে আশ’ঙ্কা করছেন নাসার বিজ্ঞানীরা।

জাতিসংঘের জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে কাজ করেন এমন বিজ্ঞানীরা বিশ্বজুড়ে তাপমাত্রা বৃদ্ধি নিয়ে আ’শংকা প্রকাশ করেছেন। অবিলম্বে পদক্ষেপ না নিলে ভ’য়াবহ পরিণতির ব্যাপারেও সতর্ক করে দিয়েছেন তারা।