প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পেলেন পবিপ্রবি বাবুগঞ্জ ক্যাম্পাসের শম্পা রানী

আরিফ হোসেন আরিফ হোসেন

বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:৩৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০ | আপডেট: ৯:৩৮:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০

আরিফ হোসেন,বাবুগঞ্জ\ পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলের জন্য প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক প্রাপ্ত সাতজন শিক্ষার্থীর মধ্যে পবিপ্রবি বরিশালের বাবুগঞ্জ ক্যাম্পাসের শম্পা রানী একজন। তিনি পবিপ্রবির বাবুগঞ্জস্থ এ্যানিমেল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের শিক্ষার্থী ছিলেন। বুধবার (২৬ ফেব্রæয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) উদ্যোগে তাদের এই স্বর্ণপদক প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
শম্পারানীর জন্মভূমি উজিরপুর উপজেলার রাখালতলা হলেও পিতা বিশ্বেশ্বর ঘরামী’র রাশেদ খান মেনন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষাকতা পেশার কারনে শৈসব থেকে বাবুগঞ্জেই বড় হয়েছেন। মাতা চায়না রানী একজন গহিনী।
স্বর্ণপদক প্রাপ্ত শম্পা রানী ২০০৯ সালে রাশেদ খান মেনন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে এসএসসি ও বাবুগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে এইচএসসি পাশ করেন। পরে পবিপ্রবির বাবুগঞ্জস্থ এ্যানিমেল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদে ভর্তি হন।
উল্লেখ্য এ বছর প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক ২০১৮ এর জন্য দেশের ৩৬টি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মোট ১৭২ জন শিক্ষার্থীকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়।
বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও বৃত্তি শাখা থেকে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের যে সব শিক্ষার্থী ২০১৮ সালে অনুষদভিত্তিক অসাধারণ ফল ও প্রথম স্থান অর্জন করেছে তাদের নামের তালিকা ইউজিসির কার্যালয়ে পাঠানো হয়। পরবর্তীতে পবিপ্রবি’র সাতজনকে প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদকের জন্য মনোনীত করে ইউজিসি কর্তৃপক্ষ।
পবিপ্রবি’র প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হচ্ছেন কৃষি অনুষদের হাবিবা জান্নাত মীম, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের মো. আতিকুর রহমান, মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদের প্রান্ত সাহা, ব্যবসায় প্রশাসন ও ব্যবস্থাপনা অনুষদের মো. আল ইমরান, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অনুষদের শ্রাবণী সরকার, পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান অনুষদের শারমিন আক্তার ও এনিম্যাল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের শম্পা রানী।