নরসিংদীতে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি, দুই প্রতারকের বিরদ্ধে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে অভিযোগ

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:৪৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০ | আপডেট: ৯:৪৪:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০

নরসিংদী প্রতিনিধিঃ
নরসিংদীতে সম্প্রতি সময় ধরে এ দুই প্রতারক বিভিন্ন ইন্ডাষ্ট্রিজ ও মিল কারখানায় প্রোগ্রামের কথা বলে একাধিক চাঁদা চাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। নরসিংদী সদর উপজেলা শীলমান্দী এলাকায় এক ডাইং ফ্যাক্টরীর সিকিউরিটি গার্ড মোঃ কাউছার মিয়া বলেন, এ দুই প্রতারক প্রতি বছরে মাহে রমজান আসলে এ দুই প্রতারক সিএনজি নিয়ে এসে হাতে একটি কার্ড দিয়ে টাকা চাই। টাকা না দিলে অনলাইনে বিভিন্ন মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করবে বলে হুমকি প্রদান করবেন বলে জানান তিনি।

অপরদিকে রায়পুরা উপজেলার উত্তর বাখরনগর ইউনিয়নের এ দুই প্রতারক গিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত কথা বুঝিয়ে সংবাদ কর্মীদের উদ্দেশ্যে একটি মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায়। উক্ত বিষয়টি নিয়ে সংবাদকর্মী ও এ বাংলার পত্রিকার প্রতিনিধি রাজু মিয়ার বিরদ্ধে নিউজ সময় পোর্টাল অনলাইনে একটি সংবাদ প্রকাশ হইলে গত ০৯/১২/২০১৯ইং তারিখে নরসিংদী পুলিশ সুপার কার্যালয়ে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা চাওয়ার অভিযোগে অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে সংবাদকর্মী রদ্রকে রাজু মিয়া জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ এ দুই প্রতারক মানুষকে হেয় প্রতিপন্ন করতে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে আসছে।

এ দুই প্রতারকের বিরদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ২৫ ধারায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। যাহার মামলা নং-৩৪৩/১৯। এরই ভিত্তিতে দৈনিক এ বাংলা পত্রিকায় প্রতারকদের ছবিসহ প্রকাশ হলে ক্ষুবে এসমস্ত অপপ্রচার চালিয়ে আসছে। তাই আমি পুলিশ সুপার এর নিকট বিচারের দাবীতে একটি লিখিত অভিযোগ করি। এ দিকে নরসিংদী জেলার আইনজীবী সমিতির সদস্য এডভোকেট হান্নান ও দৈনিক সংবাদ পত্রিকার প্রতিনিধি তিনি জানান এ সমস্ত প্রতারকদের কারণে প্রকৃত সাংবাদিকদের সুনাম নষ্ট হচ্ছে। তাই এসমস্ত অপসাংবাদিকদের বিরদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া উচিত বলে মনে করেন তিনি। এ দিকে নরসিংদী মডেল থানার এস.আই ও তদন্ত কর্মকর্তা আল মামুন সংবাদকর্মী রদ্রকে জানান, ঘটনার বিষয়ে সঠিক তদন্ত করে তাদের বিরদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।