জামালপুরে নারী কেলেঙ্কারী অধ্যক্ষের অপসারণ দাবীতে সাংবাদ সম্মেলন

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৬:৩২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২০ | আপডেট: ৬:৩২:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২০

ওসমান হারুনী,জামালপুর প্রতিনিধি:

 

জামালপুরের ইসলামপুর জে.জে.কে.এম গার্লস হাইস্কুল এন্ড কলেজের নারী কেলেঙ্কারী অধ্যক্ষ আব্দুছ ছালামের অপসারণ ও শাস্তির দাবিতে তার অপকর্ম ও অনিয়ম,দূর্নীতি তুলে ধরে সাংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল সোমবার দুপুরে প্রতিষ্ঠানের সকল শিক্ষক ও কর্মচারীবৃন্দের আয়োজনে কলেজের হলরুমে সাংবাদ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে সকলের পক্ষে থেকে প্রতিষ্ঠানটি’র সিনিয়র শিক্ষক ছামছুল আলম নারী কেলেঙ্কারী অধ্যক্ষের নানান অপকর্ম ও অনিয়ম,দূর্নীতি তুলে ধরে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়,নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ হয়ে তিন স্ত্রীর স্বামী অধ্যক্ষ আব্দুছ ছালাম বহু নারী কেলেঙ্কারী সাথে জড়িত। এছাড়াও অর্থ আত্বসাৎকারী ও দুশ্চরিত্র প্রকৃতির মানুষ। যা প্রমাণ হিসাবে উল্লেখ করা হয় গত ২ফেব্রুয়ারি ট্রেনের নারী কলেঙ্কারী ঘটনা। ওই দিন ২ফেব্রুয়ারী রবিবার জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জগামী তিস্তা ট্রেনের কেবিনে আপত্তিকর অবস্থায় ইসলামপুরের জে,জে,কে এম গার্লস হাইস্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুছ ছালাম চৌধুরী ও কলেজের প্রাক্তন এক ছাত্রী অসামাজিক কার্যকলাপের সরঞ্জামাদীসহ রেলওয়ে পুলিশের হাতে আটক হয়। পরে জিআরপি পুলিশের কাছে মুচলেখা দিয়ে ছাড়া পায় নারী কেলেঙ্কারী অধ্যক্ষ আব্দুছ ছালাম । এ ঘটনার পর তিনি লোক লজ্জায় পলাতক রয়েছেন।

এছাড়া কলেজের অধ্যক্ষ হিসাবে যোগদান করার পর সে ১৭জন শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্য করে প্রতিষ্ঠানের নামে অর্থ হাতিয়ে নিয়ে তিনি নিজেই আত্বসাত করেছেন।

এছাড়াও প্রতিষ্ঠানের ভোকেশনাল ও বিএম শাখার আদায়কৃত সমুদয় অর্থই ব্যাংকে জমা না রেখে আত্বসাৎ করেছেন।
অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব ঘটনা সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থাসহ নারী কেলেঙ্কারী অধ্যক্ষকে অপসারণ করে ইসলামপুরের ঐতিহ্যবাহী নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সুনাম রক্ষার জন্য সংশ্লিষ্ঠ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তেক্ষেপ কামনা করা হয়।