পলাতক ৪ আসামির সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের নির্দেশ

আবরার হত্যা

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১২:৪৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০১৯ | আপডেট: ১২:৪৪:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০১৯

বুয়েটের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ (২২) হত্যা মাম’লায় ২৫ আসামির মধ্যে পলাতক চার আসামি’র সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের নির্দে’শ দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) ঢাকা’র চতুর্থ অতিরিক্ত মুখ্য মহান’গর হাকিম মো. কায়সারুল ইসলাম এ আদেশ দেন। যাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে তারা হলেন- মুহাম্মদ মোর্শেদ-উজ-জামান মণ্ডল ওরফে জিসান, এহতেশামু’ল রাব্বি ওরফে তানিম, মোর্শেদ অমত্য ইসলাম ও মুজতবা রাফিদ। গত ১৮ নভেম্বর ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে ডিবি পুলিশের দেয়া চার্জশিট গ্রহণ করেন আদালত। চার আসামি পলাতক থাকায় আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তার সংক্রান্ত তামিল প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ৩ ডিসেম্ব’র তারিখ ধার্য করেন। আসামিরা গ্রেপ্তার এ’ড়াতে পলাতক রয়েছে’ন মর্মে উল্লে’খ করে পুলিশ প্রতিবেদ’ন দাখিল করে। এজ’ন্য আদালত সম্পত্তি বাজেয়াপ্তের নির্দেশ দেন। এরপর আদাল’ত আগামী ৫ জানুয়ারি পরবর্তী শুনানি দিন ধার্য করেন।

গত ১৩ নভেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক (নিরস্ত্র) মো. ওয়াহিদুজ্জামান চার্জশিট দাখিল করে’ন।

চার্জশিটভুক্ত আসামিরা হলেন- বহিষ্কৃত বুয়েট ছাত্রলীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মো. অনিক সরকার, উপ-সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক ইফতি মোশাররেফ সকাল, ক্রীড়া সম্পাদক মো. মেফতাহু’ল ইসলাম জিয়’ন, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন, মো. মনিরুজ্জামা’ন মনি’র, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভীর, শিক্ষার্থী মো. মুজাহিদুর রহমান ও এএসএম নাজমুস সাদাত, বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল, আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক অমিত সাহা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহতামিম ফুয়াদ, আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক অমিত সাহা, কর্মী মুনতাসির আল জেমি, গ্রন্থ ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক ইসাতিয়াক আহম্মেদ মুন্না, শিক্ষার্থী আবরারের রুমমেট মিজানুর রহমান, শিক্ষার্থী শাসছু’ল আরেফি’ন রা’ফাত, আকাশ হোসেন, মো. মাজেদুর রহমান মাজেদ, শামী’ম বিল্লাহ, মুয়া’জ ওরফে আবু হু’রায়রা ও এস এম মাহমু’দ সেতু, মুহাম্মাদ মোর্শেদ-উজ-জা’মান মণ্ড’ল ওরফে জিসান, এহতেশামুল রাব্বি ওরফে তানিম, মোর্শেদ অ’ম’ত্য ইসলাম ও মুজতবা রাফিদ।

আসামিদের মধ্যে প্রথ’ম ২১ জন কারাগারে আছে’ন। আর প্রথ’ম ৮ জন আ’দালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। শেষের চারজন পলাতক রয়েছেন।

গত ৬ অক্টোবর রাতে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শেরে বাংলা হলের আবাসিক ছাত্র ও তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরারকে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা পিটিয়ে হ’ত‌্যা করে।

পরদিন আবরারের বাবা বুয়েটের ১৯ শিক্ষার্থীকে আসামি করে চকবাজার থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ এজাহারের ১৬ জনসহ মোট ২১ জনকে গ্রেপ্তার করে।