বিধবার ঘরে আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে ধরা পড়লো ব্যবসায়ী

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৪:২৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০১৯ | আপডেট: ৪:২৩:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০১৯

গভীর রাতে এক বিধবার ঘরে আ’পত্তিকর অবস্থায় ধ’রা পড়েছে এক ব্যবসায়ী। দু’জনকে সারা রাত গাছের সাথে বেঁধে রেখে সকালে গ্রামবাসীকে জড়ো করে ১০ লাখ টাকা কাবিনে বিয়ে দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাত ২টার দিকে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজে’লার নারুয়া ইউনিয়নের খালিয়া গ্রামে। বিষয়টি ট’ক অব দ্যা ইউপিতে পরিণত হয়েছে।

এলাকার লোকজন বলেন, উপজে’লার নারুয়া ইউনিয়নের শোলাবাড়ীয়া গ্রামের বাসিন্দা ও নারুয়া বাজারের গুড় ব্যবসায়ী মোঃ মইজুদ্দিন (৫৫) পাশের খালিয়া গ্রামের মৃ’ত জনাব আলী ফকিরের স্ত্রী’ ৪ সন্তানের জননী আলেয়া বেগম (৫০) সাথে দীর্ঘদিন ধরে পর’কী’য়া করে আসছিল।

এলাকার লোকজন এনিয়ে নানা ধরনের কথাবার্তা বললেও মইজুদ্দিন তা সত্ত্বেও ওই বাড়ীতে যাতায়াত অব্যাহত রাখে। শুক্রবার রাত ২টার দিকে মইজুদ্দিন ওই বিধবার ঘরে ঢুকে অসামাজিক কার্যকলাপ করা অবস্থায় গ্রামবাসী তাকে হাতে নাতে আ’ট’ক করে। পরে দু’জনকে গাছের সাথে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখে।

শনিবার সকালে গ্রামবাসীর উপস্থিতিতে দু’জনই বিয়েতে সম্মতি দেওয়ায় স্থানীয় ম’সজিদের ই’মাম ওম’র আলী ১০ লাখ টাকা কাবিনে তাদের বিয়ে পড়ান।বিষয়টি দ্রুত এলাকায় ছড়িয়ে পড়ায় ট’ক অব দ্যা ইউপিতে পরিণত হয়েছে। নারুয়া বাজারের ব্যবসায়ী, চায়ের দোকানসহ সর্বত্র মইজুদ্দিনের রসালো প্রে’ম কাহিনীর গল্পে মেতেছেন।