নিখুঁত চেহারা পাবেন যেভাবে

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:৫৯ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২০, ২০১৭ | আপডেট: ৯:৫৯:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২০, ২০১৭
নিখুঁত চেহারা পাবেন যেভাবে

সবাই চায় নিজেকে নিখুঁত ও সুন্দরভাবে পৃথিবীর সামনে নিজেকে উপস্থাপন করতে। আর নারীর সবসময়ই চান সুন্দর থেকে সুন্দরতর হয়ে উঠতে।

মেকআপের ব্যাপারটি এখন যেন অনেকটাই শিল্পের মতো। এসে পড়েছে শীতের সময়। সাথে এসে গেছে বিয়ের মৌসুম।

সুতরাং এবার জেনে নিন এমন চমৎকার কিছু বিউটি টিপস ও ট্রিক্স যা দারুণভাবে কাজে লাগবে মেকআপের ক্ষেত্রে।

ফ্রেশ লুকের জন্য হাইলাইটার

মেকআপে যদি ফ্রেশ লুক আনতে চান তবে মুখের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলোতে কিছু পরিমাণে ক্রিম হাইলাইটার ব্যবহার করুন। যেমন: নাকের মাঝের অংশ, চোয়ালের উপরিভাগ, গাল, কপালের মাঝামাঝি।

বেকিং সোডা উজ্জ্বল ত্বকের জন্য

মুখের ত্বককে অনেক বেশী উজ্জ্বল এবং ফ্রেশ করে তোলার জন্যে এক টেবিল চামচ বেকিং সোডা ফেসওয়াশের সাথে মিশিয়ে ব্যবহার করতে হবে। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ভালোভাবে ধুয়ে ফেলতে হবে। সপ্তাহে অন্তত ২-৩ বার এই পদ্ধতিতে মুখ ধোয়ার চেষ্টা করতে হবে।

মেকআপ তুলতে নারিকেল তেল

পানি নিরোধক মেকআপ তোলার ক্ষেত্রে নারিকেল তেল ও অলিভ অয়েল খুব ভালো কাজ করে থাকে। তুলার বলে অল্প পরিমাণে নারিকেল তেল অথবা অলিভ অয়েল নিয়ে মেকআপ তোলার চেষ্টা করলে খুব সহজেই মেকআপ উঠে আসবে, কিন্তু ত্বকের কোন ক্ষতিও হবে না। ফেস ক্লিনজার শেষ হয়ে গেলে এই ট্রিকটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

ফাউন্ডেশন পাতলা করতে ময়েশ্চারাইজার

ব্যবহৃত ফাউন্ডেশন যদি খুব বেশী ঘন হয়ে থাকে তবে সেটাকে কিছুটা পাতলা করার জন্যে নিজের পছন্দসই ও নিত্যদিনের ব্যবহৃত ময়েশ্চারাইজার যোগ করে নিতে পারেন।

শুকিয়ে যাওয়া মাশকারা পুনরায় ব্যবহার

মাশকারা শুকিয়ে গেছে? কোন চিন্তা নেই। স্যালাইন বানিয়ে খুব অল্প পরিমাণে স্যালাইন মাশকারা টিউবের ভেতর দিয়ে ভালোভাবে ঝাঁকাতে হবে। অথবা, একটা বাটিতে গরম পানি নিয়ে তার মাঝে মাশকারার টিউবটি বসিয়ে দিতে হবে। এতে মাশকারা পুনরায় ব্যবহার করার মতো ঠিক হয়ে যাবে।

ভেঙ্গে যাওয়া পাউডার মেকআপ নতুন করে ফেলা

ফেসপাউডার, ব্লাশন, আইশ্যাডো তো হরহামেশাই ভেঙ্গে যায়। এরপর কী করেন সেগুলো? বেশিরভাগ ক্ষেত্রে নিশ্চয়ই ফেলে দেওয়া হয়। তবে আজকের এই টিপস জানার পর থেকে সেগুলো ফেলে না দিয়ে পুনরায় নতুনের মতো ব্যবহার করা যাবে। ভেঙ্গে যাওয়া যে কোন ধরণের পাউডার মেকআপের উপরে কিছু পরিমাণে রাবিং এলকোহল (সার্জিক্যাল স্পিরিট) দিয়ে একটা ছুরির সাহায্যে পাউডার এবং এলকোহলের মিশ্রনকে মিশিয়ে সমান করে রেখে দিতে হবে সারারাত। রাতের মাঝে এলকোহল বাস্প হয়ে উড়ে যাবে এবং পাউডার মেকআপ একদম নতুন মতো হয়ে যাবে। যা স্বাচ্ছন্দ্যে আবারও ব্যবহার করা যাবে।

আইল্যাশ কার্লার এর জন্য হেয়ার ড্রায়ার

চোখের পাপড়ি ঘন ও লম্বা দেখানোর জন্য প্রায় সকলেই আইল্যাশ কার্লার ব্যবহার করেন। এরপর থেকে প্রতিবার আইল্যাশ কার্লার ব্যবহারের পূর্বে হেয়ার ড্রায়ার দিয়ে সেটা কিছুটা গরম করে নিতে হবে। তবে চোখের পাপড়ি ভালোভাবে কার্ল হবে।

আই ব্রো ঠিক করতে হেয়ার স্প্রে

অনেক ঘন ভ্রু সুন্দরভাবে পরিপাটি রাখার ক্ষেত্রে হেয়ার স্প্রে খুব দারুণ কাজে দেয়। অব্যবহৃত ও পরিষ্কার একটি মাশকারা ব্রাশে হেয়ার স্প্রে করে এরপর আই ব্রো  ব্রাশ করে নিতে হবে পছন্দনীয়ভাবে।

তৈলাক্ত মাথার ত্বকের জন্য বেবি পাউডার

শ্যাম্পু করার একদিনের মাঝেই মাথার ত্বক তৈলাক্ত হয়ে যায়? এমন সমস্যা হলে মাথার ত্বকে ড্রাই শ্যাম্পু হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন বেবি পাউডার।

চুলের জন্য স্কিন কেয়ার ক্রিম

খুব ভালো মানের কোন স্কিন কেয়ার ক্রিম রাতে ঘুমাতে যাবার আগে চুলের আগায় লাগিয়ে নিলে চুল অনেক উজ্জ্বল ও নমনীয় হবে।

ডিওডরেন্টরের পরিবর্তে মাউথওয়াশ

হুট করেই যদি ডিওডরেন্ট শেষ হয়ে যায় তবে চিন্তিত হবার কিছু নেই। মাউথওয়াশ ব্যবহার করতে পারবেন নিশ্চিন্তে। তুলার বলে কিছু পরিমাণ মাউথওয়াশ নিয়ে এরপর সেটা ব্যবহার করতে হবে। মাউথওয়াশ ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফলে বলে আন্ডারআর্ম সারাদিন ভর একদম পরিষ্কার থাকবে।

ব্রণের জন্য টুথপেস্ট

রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে দেখলেন মুখের চোয়াল বরাবর দুইটি ব্রণের প্রাদুর্ভাব দেখা যাচ্ছে! মোটেও মন খারাপ করবেন না। যেখানে ব্রণ দেখা যাচ্ছে, তার ঠিক উপরেও অল্প পরিমানে টুথপেস্ট লাগিয়ে দিয়ে ঘুমিয়ে পড়ুন। সকাল হতেই ব্রণ সেরে যাবে।

পায়ের জন্য ডিওডরেন্ট

নতুন জুতা পায়ে পড়লে ফোসকা পড়াটা যেন বাধ্যতামূলক। কিন্তু এই বাধ্যতামূলক ব্যাপারটি এড়িয়ে যাওয়া যায় খুব ছোট্ট একটা উপায়ে। সেজন্য পায়ে ব্যবহার করতে হবে ডিওডরেন্ট।

নেইলপলিশ শুকিয়ে গেলে গরম পানি

অনেক সময় নেইলপলিশ ব্যবহার করার সময় দেখা যায় যে, নেইলপলিশ এর মুখ একেবারেই খোলা যাচ্ছে না। কারণ নেলপলিশ শুকিয়ে মুখ আটকে গেছে। এমতবস্থায় নেইলপলিশটিকে একবাটি গরম পানির মাঝে এক-দুই মিনিট এর জন্য চুবিয়ে রেখে দিতে হবে। এরপর নেইলপলিশটি পানি থেকে তুলে নিয়ে ভালোভাবে ঝাঁকিয়ে ব্যবহার করা যাবে।