শার্শা উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের দিনব্যাপী ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন

প্রকাশিত: ৮:৩৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১, ২০১৯ | আপডেট: ১০:০১:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১, ২০১৯

বাংলাদেশ হিন্দু -বৌদ্ধ- খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ যশোর জেলার শার্শা উপজেলা শাখার ত্রি-বাষির্কী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১লা নম্ভেম্বর) দিনব্যাপী উপজেলার বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশন ভবনে জাতীয় সঙ্গীতের মধ্যে দিয়ে জাতীয় পতাকা ও সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন যশোর যশোর -১, শার্শা আসনের সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিন ।

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের শার্শা উপজেলার আহবায়ক শ্রী দিলীপ কুমার রায়ের সভাপতিত্বে ও যুগ্ন আহ্বায়ক শ্রী বিকাশ আইচের সঞ্চালনায় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের যশোর জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক শ্রী সন্তোষ দত্ত। অনুষ্ঠানটির উদ্ভোদক ছিলেন অ্যাডভোকেট শ্রী সুকুমার রায় ৷

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শার্শা উপজেলার চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সিরাজুল হক মঞ্জু , শার্শা উপজেলা নির্বাহি অফিসার পুলক কুমার মণ্ডল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব নুরুজ্জামান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ যশোর জেলা শাখার সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য রবিনসন আর বিশ্বাস, যশোর জেলা শাখার যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শ্রী তপন কুমার ঘোষাল, কোষাধক্ষ্য শ্রী যোগেশ পাল প্রমুখ।

প্রধান অতিথি বলেন শেখ আফিল উদ্দিন এমপি বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধে মুসলিম হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টানসহ এ দেশের সকল মানুষ কাধে কাধ মিলিয়ে ৯ মাস যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছেন। দেশ স্বাধীনের পর থেকে সনাতন ধর্মের নাগরিকদের সংখ্যা লগু বলে সম্মান খাটো করা হয়। এ দেশে হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান সবাই আমরা ভাই-ভাই। তবে সংখ্যালগু তারাই যারা বিভিন্ন অপরাধের সাথে সম্পৃক্ত তাদের কে সংখ্যালগু বলতে হয়। সভায় সংগঠনের নেতৃবৃন্দ আগামী জাতীয় নির্বাচনের পূর্বে ও পরে সনাতন ধর্মের সকলকে ঐক্য বদ্ধ হয়ে থাকর আহবান জানান।

অনুষ্ঠান শেষে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সর্বসম্মতিক্রমে শার্শা উপজেলা শাখার সভাপতি পদে শ্রী জয়দেব সিংহ, ও সাধারণ সম্পাদক পদে শ্রী উত্তম রায় ও শ্রী বাবুলাল বিশ্বাসকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে তিন বছরের জন্য ৭১ সদস্য বিশিষ্ট শার্শা উপজেলা কমিটি ঘোষণা করেন।