এ বছর হত্যাকাণ্ডের শিকার ৬৫ সাংবাদিক

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১:১৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৭ | আপডেট: ১:১৪:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৭

ভালদেজকে দিবালোকে ব্যস্ত রাস্তায় গুলি করে হত্যা করা হলে মেক্সিকোজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যায়

ভালদেজকে দিবালোকে ব্যস্ত রাস্তায় গুলি করে হত্যা করা হলে মেক্সিকোজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যায়

চলতি ২০১৭ সালে এখন পর্যন্ত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন ৬৫ জন সাংবাদিক ও গণমাধ্যমকর্মী। এর মধ্যে ৫০ জনই পেশাদার রিপোর্টার বা প্রতিবেদক।

মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) রিপোর্টারদের আন্তর্জাতিক সংগঠন রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডার্সের (আরএসএফ) প্রকাশিত বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এই ৬৫ জনের মধ্যে ৩৯ জন সরাসরি খুন হয়েছেন। বাকিরা বিমান হামলা অথবা আত্মঘাতী বোমা হামলা কিংবা এ ধরনের হামলার মধ্যে পড়ে নির্বিচারে খুন হয়েছেন।

বিগত ১৪ বছরের মধ্যে এবার পেশাদার প্রতিবেদক হত্যার ঘটনা কমলেও বিশ্বের সবচেয়ে প্রাণঘাতী এলাকাগুলোতে কমে আসছে সাংবাদিকদের দায়িত্ব পালনের ঝুঁকি নেওয়ার ঘটনা।

আরএসএফ জানায়, সাংবাদিকদের জন্য সবচেয়ে বিপজ্জনক দেশ হিসেবে বিগত কয়েক বছরের মতোই এবারও ছিল যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়া। সেখানে ১২ সাংবাদিক হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন এ বছর। আর মাদক সম্রাটদের দেশ মেক্সিকোতে প্রাণ হারিয়েছেন ১১ সাংবাদিক।

প্রতিবেদন মতে, সবচেয়ে আলোচিত হত্যাকাণ্ড ছিল মেক্সিকোতে এএফপি’র প্রদায়ক জাভিয়ের ভালদেজের ঘটনা। মাদকের অন্ধকার জগত নিয়ে প্রতিবেদনের জন্য বিপুল জনপ্রিয় ভালদেজকে মে মাসে প্রকাশ্য দিবালোকে ব্যস্ত রাস্তায় গুলি করে হত্যা করা হলে মেক্সিকোজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যায়।

আরএসএফ জানায়, মেক্সিকো যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ না হলেও সেখানে রাজনৈতিক নেতৃত্বের দুর্নীতি ও সংগঠিত অপরাধের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন করা হলে তার প্রতিবেদক বা প্রদায়ককে পরিকল্পিতভাবে টার্গেট করা হয় এবং পরে গুলি করে হত্যা করা হয়।

সাংবাদিক খুনের ঘটনা কমে যাওয়ার বিষয়ে আরএসএফ মনে করছে, আগের চেয়ে সাংবাদিকরা অনেক বেশি যোগাযোগ পারঙ্গম এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। একইসঙ্গে আত্মরক্ষার সরঞ্জামাদি নিয়ে ঘটনাস্থলে থাকেন বিধায় বিপদ কমতে শুরু করেছে।