রানি মুখার্জির জীবনে দুর্গাপূজা

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৩:০৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৯, ২০১৯ | আপডেট: ৩:০৩:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৯, ২০১৯

ছোটবেলায় পরিবারের সঙ্গে পূজামণ্ডপে যেতেন রানি মুখার্জি। তখন নানান মজাদার খাবার খাওয়া হতো। এভাবে দুর্গাপূজার সুবাদেই বাঙালি সংস্কৃতির সবকিছু জেনেছেন বলিউডের এই অভিনেত্রী। তাই এই উৎসব নিজের জীবনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ভারতের একটি শীর্ষস্থানীয় দৈনিককে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রানি বলেন, ‘সাধারণ বাঙালিদের মতোই দুর্গাপূজার জন্য অপেক্ষা করি। পূজা উদযাপন দারুণ উপভোগ্য আমার কাছে। আমার তো মনে হয়, বাঙালিদের সব উদযাপনের সঙ্গে সুস্বাদু খাবারের নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে।

পরিবারের সঙ্গে মুম্বাইয়ের সার্বজনিক দুর্গাপূজা সমিতির মণ্ডপে যান রানি। সাদা শাড়িতে তাকে দারুণ লেগেছে। এর আয়োজন করেন তার চাচাত বোন শর্বানি মুখার্জি। তাদের আরেক চাচাত বোন কাজল একদিন আগে মণ্ডপটি ঘুরে গেছেন।
একই মণ্ডপে মা দুর্গার প্রতি শ্রদ্ধা জানান অভিনেত্রী জয়া বচ্চন। তাকে অভ্যর্থনা জানান রানির চাচাত ভাই পরিচালক অয়ন মুখার্জি। দুই ভাইবোন খুনসুটিতে মেতেছিলেন একফাঁকে। মণ্ডপটিতে পূজা উদযাপন দেখতে আসেন দুই পরিচালক অনুরাগ বসু ও ইমতিয়াজ আলি।

এদিকে রানির নতুন ছবি ‘মারদানি টু’ মুক্তি পাবে আগামী ১৩ ডিসেম্বর। এতে আবারও সিনিয়র ইন্সপেক্টর শিবানি শিবাজি রয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। ইতোমধ্যে এর টিজার মুক্তি পেয়েছে। ২০১৪ সালে মুক্তি পায় ‘মারদানি’।

পরিচিতি:

রানী মুখার্জী (হিন্দি: रानी मुखर्जी; জন্ম মার্চ ২১, ১৯৭৮) হলেন একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। তিনি ২০০০-এর দশকের বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় ও সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক গ্রহীতা অভিনেত্রী ছিলেন। কর্মজীবনে তিনি সাতটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার সহ একাধিক পুরস্কার লাভ করেছেন।

মুখার্জি-সমর্থ পরিবারে জন্মগ্রহণ করলেও, যেখানে তার বাবা এবং আত্মীয়রা ভারতীয় চলচ্চিত্র শিল্পের সদস্য ছিলেন; সেখানে তিনি জীবিকা হিসেবে চলচ্চিত্রকে বেছে নেয়ার বিষয়ে উচ্চাভিলাষী ছিলেন না। যদিও, ছেলেবেলায়ই তিনি বাবার পরিচালিত বাংলা ভাষার চলচ্চিত্র বিয়ের ফুল (১৯৯৬) চলচ্চিত্রে সহ-চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে এবং পরবর্তীতে তার মায়ের সনির্বন্ধ অনুরোধে রাজা কি আয়েগি বারাত (১৯৯৭) সামাজিক নাট্য চলচ্চিত্রে মূখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেন। এরপর নিয়মিত হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন কুছ কুছ হোতা হ্যায় (১৯৯৮) চলচ্চিত্রে শাহরুখ খানের বিপরীতে একটি সহযোগী চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে। তার কর্মজীবনের এই প্রাথমিক সাফল্যের পর, পরবর্তী তিন বছরের জন্য তার চলচ্চিত্র বক্স অফিসে দুর্বল অবস্থানে ছিল। যশ রাজ ফিল্মসের সাথিয়া (২০০২) নাট্য চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পর তার কর্মজীবনের সাফল্য আসে।

তিনি তার পিতা রাম মুখার্জী একজন অবসরপ্রাপ্ত পরিচালক। তার মা কৃষ্ণা মুখার্জী চলচ্চিত্রে গান গাইতেন। তার ভাই রাজা মুখার্জী একজন চিত্র প্রযোজক। তার মাসি হলেন প্রখ্যাত চিত্রনায়িকা দেবশ্রী রায়। বলিউড তারকা অভিনেত্রী কাজল তার সম্পর্কিত বোন।তিনি বিখ্যাত পরিচালক প্রযোজক যশ চোপড়া এর বড় ছেলে পরিচালক ও প্রযোজক আদিত্য চোপড়াকে বিয়ে করেন।