রোহিঙ্গা তরুণীকে বিয়ে করে টঙ্গীতে বসবাস করছেন বরিশালের যুবক

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৭:৫৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯ | আপডেট: ৭:৫৪:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৯

বরিশাল জে’লার এক যুবকের বি’রুদ্ধে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৫৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের স্বাক্ষর সম্বলিত জন্ম সনদ দিয়ে রোহিঙ্গা নারীকে বিয়ে করার অ’ভিযোগ উঠেছে।অ’ভিযুক্ত যুবকের নাম সাইফুল ইস’লাম (২৬)। সে বরিশাল জে’লার বাখেরগঞ্জ থা’নার চরমোদ্দি ইউনিয়নের সাদেক আলীর ছে’লে। ওই রোহিঙ্গা তরুণীর নাম ফাতেমা আক্তার (১৯)।শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) রাতে ঘটনাটি জানাজানি হয়।

 

জানা গেছে, মিয়ানমা’রের সহিং’সতা থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয় ওই নারী ও তার পরিবার। এরপর কয়েক মাস পূর্বে ওই নারী সাইফুল ইস’লামের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়ে টঙ্গীর মাছিমপুর এলাকায় বসবাস করে আসছেন।মিয়ানমা’রের নির্যাতিত রোহিঙ্গারা নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য বাংলাদেশি নাগরিকদের বিয়ের চেষ্টা করছে বলে অ’ভিযোগ ওঠে। সেসময় রোহিঙ্গাদের সঙ্গে বাংলাদেশি নাগরিকদের বিয়ে নিষিদ্ধ করে বাংলাদেশ সরকার।

 

জানা যায়, রোহিঙ্গা আশ্রয়স্থল থেকে পালিয়ে কয়েক মাস আগে ফাতেমাকে নিয়ে টঙ্গী মিল গেইট এলাকায় পাড়ি জমায় পরিবারটি। এরই মধ্যে ফাতেমা ও তার ভাই আজগর আলী স্থানীয় ঝুটের গোডাউনে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। তবে তাৎক্ষণিক পরিবারের কেউ জাতীয় পরিচয়পত্র দেখাতে পারেনি।

 

জন্মসনদটিতে স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা একই এলাকা উল্লেখ করে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল হাসেম চলতি বছরের মে মাসে জন্মসনদ প্রদান করলে তাদের বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়।গাসিক ৫৫ ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল হাসেম বলেন, এরা এ নম্বর এলাকার না। এক সময় রোহিঙ্গা ছিল। তবে দীর্ঘদিন যাবত এ এলাকায় বসবাস করছে বলে আমা’র জানা। তবে ভুল করে আমা’র অফিস থেকে গিয়েছে কিনা তা আমা’র জানা নেই।