অবৈ*ধ সম্পর্কের খবর লোকজন জানতে পারায় আত্মহত্যা

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:৪২ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯ | আপডেট: ৯:৪৫:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯

ঢাকার নবাবগঞ্জে শনিবার কলাকোপা ইউনিয়নের কাশিমপুর এলাকার বাসিন্দা, মধ্যপ্রাচ্যের দুবাই প্রবাসী, ওমর ফারুকের স্ত্রী সায়মা আক্তার (২২)-এর ঝুলন্ত লাশ, উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃত সায়মা দোহার উপজেলার মধুরচর গ্রামের, মো. সালাম মোল্লার মেয়ে।

 

সায়মার পরিবারের সদস্যদের দাবি, শ্বশুরবাড়ি আত্মীয়-স্বজন প্রায় যৌতুকের জন্য চাপ প্রয়োগ করত। তার মৃ’ত্যুর জন্য স্বামীর পরিবারের সদস্যরা দায়ী।

 

এলাকাবাসী ও নবাবগঞ্জ থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাত ৯টা থেকে ১১টার মধ্যে নবাবগঞ্জের কাশিমপুরে অবস্থিত তার শ্বশুরবাড়ির ঘরে গলায় ওড়না পেঁছিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

 

এ ছাড়া শ্বশুরবাড়ির স্বজনদের দাবি, সায়*মাকে  বিভিন্ন পুরুষের সঙ্গে অবৈ*ধ  সম্পর্কের খবর লোকজন জানতে পারায় সে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় ও নিজের মোবাইল ভেঙে ফেলে।

 

এ বিষয়ে মৃত সায়মার চাচি হেনা বেগম এ প্রতিবেদককে বলেন, সায়মার সঙ্গে তার স্বামীর ২ মাস যাবৎ যোগাযোগ বন্ধ। শ্বশুর-শাশুড়ি, ননদ ও ননদের জামাইরা সায়*মাকে  বিভিন্ন সময় মানসিক ও শারীরিকভাবে অত্যাচার করত। এমনকি স্বামীর সঙ্গে মোবাইলে বিদেশে যোগাযোগ করতে দিত না।

 

বিয়েতে আমরা জামাইকে উপহার হিসেবে বিভিন্ন ফার্নিচারসামগ্রী দিলেও তারা নগদ ১ লাখ টাকার জন্য প্রায় চাপ দিতে থাকে। আমরা গরিব মানুষ টাকা কোথায় পাব।

 

নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তফা কামাল বলেন, এ বিষয়ে পুলিশ কাজ করছে। সুরতহাল রিপোর্ট শেষে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

সূত্র: যুগান্তর