বন্ধুদের দিয়ে স্ত্রীকে গণধ’র্ষণ; স্বামী গ্রেপ্তার

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৫:৫৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯ | আপডেট: ৫:৫৬:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯

আন্তর্জাতিকঃ অভিযোগ উঠেছে, বন্ধুদের দিয়ে নিজের স্ত্রীকে গণধ’র্ষণ করিয়েছেন এক স্বামী। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরে ঘটনাটি ঘটেছে। স্বামী ও তাঁর দুই বন্ধুর বি’রুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই নারী। ইতিমধ্যে নি’র্যাতিতার স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বাকি অ’ভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

জানা গেছে,ওই যুবক উত্তর চব্বিশ পরগনার মধ্যমগ্রামের বাসিন্দা। গত বছর অক্টোবর মাসে তার সঙ্গে বিয়ে হয় বাগদা এলাকার এক যুবতীর। অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই স্ত্রীর ওপর শারীরিক ও মানসিক নি’র্যাতন শুরু করে তাঁর স্বামী। অ’ত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বাধ্য হয়ে বাপের বাড়ি চলে যান স্ত্রী। এরপর বিচ্ছেদের মা’মলা করেন তিনি।

জানা গেছে, সেই মা’মলা সংক্রান্ত কাজে বুধবার তাঁকে কলকাতা হাইকোর্টে ডেকে পাঠায় তাঁর স্বামী। সেই মোতাবেক আ’দালতে পৌঁছান ওই নারী। সন্ধ্যা পর্যন্ত বসিয়ে রাখার পর ওই নারীর স্বামী তাঁকে জানান, একজন উকিলের বাড়ি যেতে হবে। এরপরই স্বামীর দুই বন্ধু তাঁকে একটি গাড়িতে করে সোনারপুরের একটি বাড়িতে নিয়ে যায়।

অভিযোগ, সেখানে দুদিন আ’টকে রেখে গণধ’র্ষণ করা হয় ওই নারীকে। পরে শুক্রবার রাতে ওই নারীকে ক্যানিং স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় নিয়ে যায় ওই দুই যুবক। তাদের হাত থেকে বাঁচতে কোনোরকমে পালিয়ে ওই যুবতী স্টেশন চত্বরে ভীড়ের মধ্যে মিশে যান। এরপর ক্যানিং রেল পুলিশের কর্মকর্তাদের গোটা বিষয়টি জানান তিনি। তাঁদের পরামর্শ মেনেই স্বামী ও তাঁর দুই বন্ধুর বি’রুদ্ধে সোনারপুর থানায় লিখিত অভিযোগ জানান নি’র্যাতিতা।

ওই নারীর অভিযোগ, মাথায় ব’ন্দুক ঠে’কিয়ে ভয় দেখানো হয়েছিল তাঁকে। বলা হয়েছিল, চিৎকার করলে মে’রে ফেলা হবে।

ইতিমধ্যে ওই নারীর স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বাকিদের সন্ধানে অভিযান চলছে।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন