প্যারিসে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে বিএনপি নেতাকর্মী

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৮:৪৬ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৭ | আপডেট: ৮:৪৬:পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৭
প্যারিসে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেছে বিএনপি নেতাকর্মী

কেবল পরিবেশ রক্ষার জন্য সামিট করলে হবে না, দানবের হাত থেকে ষোল কোটি মানুষকে বাঁচানোর উদ্যোগও নিতে হবে।”
বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি ব্যারিস্টার আবু সায়েম।।

প্যারিসে ‘ওয়ান প্ল্যানেট সামিট’এ যোগ দিতে আসা শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ব্যাপক বিক্ষোভ করেছে বিএনপি নেতাকর্মী ও প্রবাসী বাংলাদেশীরা। ‘ওয়ান প্ল্যানেট সামিট’এ যোগদানের প্রতিবাদে ও অবৈধ সরকারের পদত্যাগের দাবিতে মঙ্গলবার শেখ হাসিনার হোটেলের সামনে চার ঘন্টারও অধিক সময় অবস্থান করে ফ্রান্স ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশের বিএনপি নেতাকর্মীসহ কয়েক হাজার প্রবাসী বাংলাদেশী।

ফ্রান্স বিএনপির উদ্যোগে ও তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত হাসিনাবিরোধী স্মরণকালের অন্যতম বৃহৎ এ প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ কর্মসূচীর সার্বিক পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন ফ্রান্স বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম এ তাহের। আয়োজকদের অন্যরা হলেন ফ্রান্স বিএনপির সভাপতি সৈয়দ সাইফুর রহমান, সিনিয়র সহসভাপতি হাজী হাবিব, প্রধান উপদেষ্টা আহসানুল হক বুলুসহ ফ্রান্স বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতৃবৃন্দ। কেন্দ্রীয় বিএনপির অন্যতম আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহিদুর রহমান নেতৃত্ব দেন সমাবেশে। কর্মসূচী সফল করতে সবাইকে উজ্জীবিত করেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক। প্রয়োজনীয় তদারকিতে আরো ছিলেন বিএনপি সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার আবু সায়েম, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সহ-সম্পাদক আনোয়ার হোসেন ও সুইডেন বিএনপির প্রধান উপদেষ্টা মহিউদ্দিন আহমেদ ঝিন্টু।

সমাবেশস্থল ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় ব্যানার ও ফেস্টুন প্রদর্শন এবং লিফলেট বিতরণ করে বিক্ষোভকারীরা। গোটা সময় জুড়ে হাসিনাবিরোধী স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত ছিলো প্যারিসের প্রাণকেন্দ্র প্লেস জ্যাকস রৌচি। সেখানে অনুষ্ঠিত হয় তাৎক্ষণিক সভাও। বক্তারা গুম, খুন ও নির্মম নির্যাতনের মাধ্যমে বাংলাদেশে ভয়াবহ মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং বিশ্ব-ঐতিহ্য সুন্দরবন ধ্বংসকারী রামপাল বিদ্যুৎ প্রকল্পসহ নানাবিধ পরিবেশবিরোধী কার্যক্রমের জন্য সরাসরি শেখ হাসিনাকে অভিযুক্ত করেন।

মাহিদুর রহমান বলেন, “বাংলাদেশে গণতন্ত্র ফিরে না আসা পর্যন্ত হাসিনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ-প্রতিরোধ অব্যাহত থাকবে।” তিনি ফ্রান্স ও ইউরোপের অন্যান্য দেশ থেকে আগত বিএনপি নেতৃবৃন্দসহ প্রবাসী বাংলাদেশীদের ধন্যবাদ জানান বিক্ষোভ কর্মসূচী সফল করার জন্য।

বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত বিএনপি সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার আবু সায়েম ইংরেজীতে দেওয়া তার বক্তব্যে বলেন, “বিশ্ব নেতৃবৃন্দ আজ প্যারিসে একত্রিত হয়েছেন জলবায়ু রক্ষার জন্য। কিন্তু তারা দানবের হাত থেকে ষোল কোটি মানুষকে রক্ষার উদ্যোগ নিচ্ছেন না। সুন্দরবন ও রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারদের বাঁচাতেও ব্যর্থ হয়েছেন তারা।” তিনি আরও বলেন, “মানুষ ও পরিবেশখেকো শেখ হাসিনাকে নিয়ে সামিট করলে তা কখনোই সাফল্যের মুখ দেখবে না।” ব্যারিস্টার সায়েম বাংলাদেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে, মানবাধিকার পরিস্থিতির উন্নয়নে ও পরিবেশ রক্ষায় কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান।

বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দেন কেন্দ্রীয় বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এ সালাম, সুইডেন বিএনপির সভাপতি এমদাদ হোসেন কচি, যুবদলের সভাপতি মো. লিংকন, ডেনমার্ক বিএনপির সভাপতি গাজী মনির আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মো. ওমর ফারুক, ফিনল্যান্ড বিএনপির সভাপতি কামরুল হাসান জনি, সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার মো. আশরাফ, গ্রিস বিএনপির সভাপতি জিএম মুখলেসুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন ঠাকুর, নেদারল্যান্ডস বিএনপির সভাপতি শরিফ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, ইতালী বিএনপির সভাপতি মো. আব্দুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক ঢালী নাসির উদ্দিন, জার্মানী বিএনপির সভাপতি আকুল মিয়া, সাধারণ সম্পাদক গণি সরকার, বেলজিয়াম বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন বাবু, সিনিয়র সহসভাপতি সাইদুর রহমান লিটন, অস্ট্রিয়া বিএনপি নেতা নেয়ামুল বশির, সুইজারল্যান্ড বিএনপির মইনুল হক অপু, আনোয়ার শেখ, কবির মোল্লা, আয়ারল্যান্ড বিএনপি নেতা কবির আহমেদ, যুক্তরাজ্য যুবদলের সভাপতি রহিম উদ্দিন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি ডালিয়া লাকুরিয়া, স্পেন বিএনপির রাসেল আহমেদ প্রমুখ

  • তথ্য ও সূত্র : বাংলার জাগরণ।