নলছিটির তিন গ্রামের মানুষের চলাচলের রাস্তাটি যেন মরণ ফাঁদ!

প্রকাশিত: ৮:০১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৯, ২০১৯ | আপডেট: ৮:০১:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৯, ২০১৯

ঝালকাঠির নলছিটির তিন গ্রামের মনুষের চলাচলের এশমাত্র রাস্তাটি মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। উপজেলার সিদ্ধকাঠী ইউনিয়নের চন্দ্রকান্দা চৌমাথা থেকে দেওপাশা, রাজপাশা এবং চৌদ্দবুড়িয়া যাওয়ার একমাত্র রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধওে চলাচলে অনুপযোগী। স্থানীয় কর্তৃপরে উদাসীনতায় বর্তমানে রাস্তাটি মৌসুমী জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে। যার ফলে রাস্তাটি এলাকাবাসীর জন্য মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে।
এ রাস্তাটি দিয়ে চন্দ্রকান্দা মাধ্যমিক বিদ্যালয, চন্দ্রকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং চৌদ্দবুড়িয়া দারুল উলুম মাদ্রাসা এবং গোচরা ইসলামিয়া হোসাইনিয়া দাখিল মাদ্রাসাসহ কয়েকটি শিা প্রতিষ্ঠানের শিার্থীরা যাতায়াত করে। এছাড়া এটি তিনটি গ্রামের জনগণের জেলা ও এবং উপজেলায় যাতায়াত করার একমাত্র রাস্তা । সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, মাটির তৈরি এ রাস্তাটিতে অসংখ্য ছোট-বড় খানাখন্দ। এসব স্থানে বৃষ্টির পানি জমে মানুষ চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। রাস্তাটি বর্তমানে মৌসুমী জোয়ারের পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় প্রতিনিয়ত পথচারীরা ওই খানা খন্দে পড়ে ও হোচট খেয়ে আহত হচ্ছেন। ফলে উপজেলা ও জেলা শহরের সাথে যোগাযোগকারী পথচারীদের চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। তাছাড়া বেশ কয়েকটি স্থানে বড় বড় গতের্র সৃষ্টি হওয়ায় জনদুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। ওই রাস্তা দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করায় প্রায়ই ঘটছে ছোটবড় দুর্ঘটনা। বর্ষাকালে এখানে কোন যানবাহন চলাচল করতে না পারায় রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতে চরম বিপাকে পড়তে হচ্ছে এলাকাবাসীর।
এব্যাপারে জানতে চাইলে সিদ্ধকাঠী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী জেসমিন আক্তার বলেন, রাস্তাটি জনগুরুত্বপূর্ণ। এটি সংস্কারের জন্য দীর্ঘদিন যাবত চেষ্টা চলছে, বরাদ্দের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আবেদন করা হয়েছে । বরাদ্দ পেলেই দ্রুত সংস্কার করা হবে।