মিন্নির শারিরীক অবস্থা ভালো না বিনা চিকিৎসায় মারা যাবে-বাবা

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৬:১০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০১৯ | আপডেট: ৬:১০:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক:

আয়’শা সিদ্দিকা মিন্নির সাথে কারাগারে দেখা করেছেন তার বাবা-মাসহ পরিবারের সদস্যরা। শনিবার (২৭ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে তারা জে’লা কারাগারের সামনে এসেছিলেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তারা মিন্নির সাথে দেখা করে মলিন মুখে চলে গেছেন। এ সময় মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কি’শোর অনেকটা ক্ষুব্ধ ছিলেন। তিনি কোনো মতামত দিতে রাজি না হলেও রাগের সাথে বলেছেন, তার মে’য়ে ভালো নেই, বিনা চিকিৎসায় মা’রা যাবেন।

সাদা পোশাকধারী পু’লিশের প্রতি ক্ষোভ জানিয়ে তিনি বলেছেন, তাদের জন্য মে’য়ের সাথে মন খুলে কথা বলতেও পারেন না। সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে গেলেও তারা কাছে এসে দাঁড়িয়ে থাকেন। আয়’শা সিদ্দিকে মিন্নিকে তার স্বামী রিফাত শরীফ হ’ত্যা মা’মলায় গত ১৬ জুলাই রাত ৯টার দিকে গ্রে’ফতার করে বরগুনা কারাগারে পাঠানো হয়। পরের দিন বিকেল সোয়া তিনটার দিকে কারাগার থেকে বরগুনার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মোহাম্ম’দ সিরাজুল ইস’লাম গাজীর আ’দালতে হাজির করে ৫ দিনের রি’মান্ডে নেয় পু’লিশ।

রি’মান্ডে নিয়ে ৪৮ ঘণ্টা পরই ১৯ জুলাই বেলা ২টার দিকে মিন্নিকে বরগুনার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মোহাম্ম’দ সিরাজুল ইস’লাম গাজীর আ’দালতে হাজির করে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানব’ন্দি নেয়া হয়। ওইদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মিন্নিকে বরগুনা কারাগারে পাঠানো হয়। পরের দিন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আয়’শা সিদ্দিকা মিন্নির সাথে তার বাবা-মাসহ পরিবারের সদস্যরা দেখা করে জানান, মিন্নিকে পু’লিশ শারীরিক ও মান’সিক নি’র্যাতন করেছে।

গত ২২ জুলাই বরগুনা জে’লা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল বারী আসলাম হাসপাতালে নিয়ে মিন্নির চিকিৎসা ও তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানব’ন্দি প্রত্যাহারের জন্য বরগুনার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মোহাম্ম’দ সিরাজুল ইস’লাম গাজীর আ’দালতে আবেদন করেন। বিচারক তার আবেদন নামঞ্জুর করে কারা কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে মিন্নিকে আবেদন করার পরাম’র্শ দিয়ে আইনজীবীর হাতে ওইদিনের আবেদনপত্র ফেরত দিয়েছেন।

গত ২৪ জুলাই আইনজীবী অ্যাডভোকেট মাহাবুবুল বারী আসলাম কারাগারে গিয়ে আয়’শা সিদ্দিকা মিন্নির সাথে কথা বলেছেন। তিনি কারাগার থেকে বের হয়ে জানান, মিন্নিকে শারীরিক ও মান’সিক নি’র্যাতন করা হয়েছে। মিন্নি ভালো’ভাবে হাঁটতে পারেন না। তার চিকিৎসা দরকার। আজও (শনিবার) একই কথা বলেছেন মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কি’শোর। যদিও শুক্রবার (২৬ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টায় বরগুনা সিভিল সার্জন অফিসের ডা. হাবিবুর রহমান কারাগারে আয়’শা সিদ্দিকা মিন্নির খোঁজখবর নিয়ে জানান, তিনি সুস্থ আছেন।