বরিশালে অতি বৃষ্টি সহ ও চট্টগ্রামে ভূমিধসের আশঙ্কা রয়েছে

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১০:০৮ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০১৯ | আপডেট: ১০:০৯:পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০১৯

বৈরী আবহাওয়া ও টানা বৃষ্টির কারণে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে পণ্য খালাস বন্ধ রয়েছে। বাংলাদেশের ওপর মৌসুমী বায়ু সক্রিয় থাকায় বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে। চট্টগ্রামের পাহাড়ি এলাকায় ভূমিধসের আশঙ্কাও রয়েছে। রোববার (৭ জুলাই) আবহাওয়াবিদ মো. রুহুল কুদ্দুছ এ তথ্য জানিয়েছেন।

আবহাওয়া ও টানা বৃষ্টির কারণে চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে পণ্য খালাস বন্ধ রয়েছে। ফলে পণ্য খালাস নিতে এসে বুকিং দিয়ে পেয়েও অলস বসে আছে চার শতাধিক লাইটার জাহাজ। তবে জেটিতে জাহাজ থেকে পণ্য ওঠানামা স্বাভাবিক রয়েছে। সাগর শান্ত না হওয়া পর্যন্ত বহির্নোঙরে পণ্য খালাস বন্ধ থাকবে।

তিনি বলেন, মৌসুমী বায়ু সক্রিয় থাকায় রোববার সকাল ১০টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল এবং চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী (৪৪ থেকে ৮৮ মিলিমিটার) থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।অতি ভারী বৃষ্টির কারণে চট্টগ্রাম বিভাগের পাহাড়ি এলাকায় কোথাও কোথাও ভূমিধসের আশঙ্কা রয়েছে।

চট্টগ্রাম বন্দরের চিফ পারসোনাল অফিসার মো. নাছির উদ্দিন বলেন, কিছুটা বিঘœ ঘটলেও জেটিতে পুরোদমে কাজ চলছে। তবে মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে সাগর উত্তাল থাকায় বহির্নোঙরে কাজ বন্ধ রয়েছে। আশা করি আজ সোমবারের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে। বন্দরসূত্রে জানা গেছে, গতকাল রবিবার পর্যন্ত বহির্নোঙরে বিভিন্ন পণ্য নিয়ে আসা ৬৮টি জাহাজ অবস্থান করছিল।

উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। এর প্রভাবে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর এবং সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরগুলোকে ৩ নম্বর (পুনঃ) তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।