৭১’র এই দিনে মানুষের সাহস ছিল দূরন্ত

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:৪২ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৭, ২০১৭ | আপডেট: ৯:৪২:পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৭, ২০১৭
৭১’র এই দিনে মানুষের সাহস ছিল দূরন্ত

আজ বৃহস্পতিবার ৭ ডিসেম্বর। ভারতের স্বীকৃতীর পরে একাত্তরের এই দিনে রণাঙ্গনে ও রণাঙ্গনের বাইরে প্রতিটি মানুষ অধিকতর সাহস নিয়ে অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখার প্রয়াস পায়। আবেগ আর আকাক্সক্ষার সম্মোহনী শক্তি নিয়ে দূরন্ত মুক্তিযোদ্ধারা এগিয়ে যায়। শত্রু মোকাবিলা কিংবা পরাভূত করতে স্থানে স্থানে চলে সম্মুখ সমর। স্বাধীনতা চাই, বিজয় চাই, পরাধীনতার শিকল ভাঙ্গতে চাই। যে কোন মূল্যে প্রিয় মাতৃভূমিকে মুক্ত করতে হবে পাকিস্তানী দখলদার বাহিনীর কবল থেকে। ১৯৭১ সালের এই দিনে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে একটি মার্কিনী প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। প্রস্তাবের পক্ষে ১০৪টি এবং বিপক্ষে ১১টি ভোট পড়ে। দশটি দেশ ভোট প্রদান থেকে বিরত থাকে।

সাধারণ পরিষদে গৃহীত প্রস্তাবে অবিলম্বে যুদ্ধবিরতি এবং সৈন্য প্রত্যাহারের জন্য ভারত পাকিস্তানের প্রতি আহবান জানানো হয়। প্রস্তাবে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পাকিস্তানের পক্ষাবলম্বন থাকলেও বাংলাদেশের বিজয়কে তা প্রতিহত করতে পারেনি। একাত্তরের বীরযোদ্ধাদের মুক্তি অর্জনের ধারাবাহিকতায় ৭ ডিসেম্বর মুক্ত হয় শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ি, মাগুরা, গোপালগঞ্জ, নোয়াখালী, ঝিনাইদহ, বরিশাল, মোমেনশাহী, সাতক্ষীরা, কুমিল্লার বরুড়া, সিলেটের বালাগঞ্জ, সুনামগঞ্জের ছাতকসহ বিভিন্ন অঞ্চল। এদিন সিলেটে হেলিকপ্টারযোগে অবতরণ করেছিল ভারতীয় সৈন্যরা। তাদের সহযোগিতায়ই মুক্তিবাহিনী সিলেট, মৌলবীবাজারকে মুক্ত করে। জামালপুর সীমান্তে চলছিল প্রচ- যুদ্ধ। মূলতঃ এদিনই পাকবাহিনী পরাজয়বরণ করে।