ঝালকাঠি জেলা বিএনপি’র সম্পাদককে শো-কজ, ১০ দিনের মধ্যে জবাবের নির্দেশ

প্রকাশিত: ১১:৩৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ২, ২০১৯ | আপডেট: ১১:৩৫:পূর্বাহ্ণ, জুন ২, ২০১৯

ঝালকাঠি জেলা বিএনপির উপদেষ্টা ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আলম গিয়াসকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করার অভিযোগে জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মনিরুল ইসলাম নুপুরকে শো-কজ করেছে কেন্দ্রীয় বিএনপি। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিত রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত কারণ দর্শানোর নিাটিশ ১জুন সন্ধ্যায় ঝালকাঠি এসে পৌছে। যার স্মারক সূত্র নং- বিএনপি/কারণ দর্শাও/৭৭/২০১৮/১৯। আগামী ১০ দিনের মধ্যে উক্ত শো-কজের লিখিত জবাব দিতে বলা হয়েছে।
শো-কজ লেটারে উলে­খ করা হয়েছে, গত ১৬ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে ঝালকাঠি জেলা বিএনপির এক সাধারন সভা শেষে জেলা বিএনপির উপদেষ্টা মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আলম গিয়াসকে সকলের সামনে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। যা তদন্তে সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে। ইহা সম্পুর্ণভাবে দলীয় শৃঙ্খলা পরিপন্থি কর্মকান্ড। সে ক্ষেত্রে কেন আপনার (সাধারন সম্পাদক মনিরুল ইসলাম নুপুর) বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না তার কারণ দর্শিয়ে আগামী ১০ দিনের মধ্যে একটি লিখিত প্রতিবেদন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বরাবরে নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে প্রেরণ করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো।
জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মনিরুল ইসলাম নুপুর জানান,‘১৬ এপ্রিল জেলা বিএনপির সাধারন সভার সিদ্ধান্তের বিপক্ষে তিনি কথা বলায় তার সাথে কথা কাটাকাটি হয়েছে। তাকে গালিগালাজ বা লাঞ্ছিত করা হয়নি। শো-কজ লেটার এখনও আমি হাতে পাইনি। হাতে পেলে যথাসময়ে কেন্দ্রে জবাব দেয়া হবে।’