থামছে না খাদ্য গুদামের অনিয়ম, চাল পাচারকালে ২জন আটক, বিচারের দাবীতে বিক্ষোভ

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৮:৫৮ অপরাহ্ণ, মে ৩১, ২০১৯ | আপডেট: ৮:৫৮:অপরাহ্ণ, মে ৩১, ২০১৯

নাজমুল হক, মাদারীপুর।

কিছুতেই থামছে না খাদ্য গুদামের অনিয়ম। চাল সংগ্রহের অনিয়মের তদন্ত এখনো শেষ হয়নি,এর মদ্ধেই আবার চাল পচারের ঘটনা ঘটেছে।

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট খাদ্য গুদামের চাল পাচারকালে হাতেনাতে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। এঘটনায় জড়িতদের বিচারের দাবীতে স্থানীয় বাসিন্দা ও শ্রমিকরা বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

স্থানীয় ও সংশ্লিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুরের টেকেরহাট খাদ্য গুদামের সরকারি চাল দীর্ঘদিন ধরে টেকেরহাট গুদামের গুদাম রক্ষক গাজী সালাউদ্দিনসহ গুদামের কয়েক কর্মকর্তা-কর্মচারী যোগসাজসে পাচার করে আসছিল। শুক্রবার দুুপুরে গুদামে রক্ষিত প্রতি চালের বস্তা থেকে ৩-৪ কেজি চাল বের করতেছিল। এসময় স্থানীয়রা বিষয়টি টের পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে খবর দিলে তিনি পুলিশ নিয়ে এসে সেলিম শেখ ও মমরাজ মৃধা নামে দুই কর্মচারীকে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদে আটক কর্মচারীরা চাল পাচারের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, খাদ্য গুদামের গুদাম রক্ষক গাজী সালাহ উদ্দিনের নির্দেশে আমরা বস্তা থেকে চাল বের করেছিলাম। আমরা তার চাকুরী করি তাই তার হুকুম মানতে হয়েছে।

তবে টেকেরহাট খাদ্য গুদামের গুদাম রক্ষক গাজী সালাহ উদ্দিন চাল পাচারে জড়িত থাকার বিষয় অস্বীকার করেছেন।
এব্যাপারে টেকেরহাট খাদ্য গুদামের ঠিকাদার উজির শেখ বলেন, বিষয়টি টের পেয়ে আমরা ইউএনওকে খবর দিলে দিলে ইউএনও এসে দুইজনকে হাতে নাতে আটক করেছে। দীর্ঘদিন থেকেই একটি চক্র এই অপকর্ম করে আসছিল।

রাজৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহানা নাসরিন বলেন, খাদ্য গুদামের সরকারি প্রতিটি বস্তা থেকে ৩-৪ কেজি চাল বের করে আলাদা করে বিক্রি করে আসছিল। আজ আমরা চাল পাচারের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে এসে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছি। এঘটনায় গুদাম শীলগালা করা হয়েছে ও জেলা প্রশাসকের অনুমতি ক্রমে আগামীকাল তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। বর্তমানে দায়িত্বপ্রাপ্ত গুদাম রক্ষককে দায়িত্ব পালন থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। এব্যপারে আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. জামাল উদ্দিন বলেন, বিষয়টি শুনে আমি জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রককে নির্দেশ দিয়েছে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য।

এর আগেও মাদারীপুরে চলতি বোরো মৌসুমে চাল সংগ্রহ অভিযানে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।
সংগ্রহ অভিযান উদ্ধোধনের আগেই রাজৈরের টেকেরহাট খাদ্য গুদামে ৪শ মে.টন চাল গুদামে ভর্তি করে রাখায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

গত ১৪ মে বোরো চাল সংগ্রহ অভিযানের উদ্ধোধন করতে গিয়ে বিষয়টি রাজৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহানা নাসরিনের দৃষ্টি গোচর হলে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এ ব্যাপারে একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।