তালতলীতে ছেড়ে দেয়া হয়েছে ট্রলারসহ ১৫ জেলেকে!

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৮:০০ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৬, ২০১৭ | আপডেট: ৮:০০:পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৬, ২০১৭
তালতলীতে ছেড়ে দেয়া হয়েছে ট্রলারসহ ১৫ জেলেকে!

বরগুনার তালতলীতে জাটকা ধরার অপরাধে মালিক সরোয়ারকে জরিমানা করে আটককৃত ট্রলার ও ১৫ জেলেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
তালতলীর নিদ্রা সকিনা কোস্টগার্ড সোমবার গভীর রাতে ১০মন জাটকা ইলিশ, এফবি হোসেন নামের ১টি মাছ ধরা ট্রলার ও মালিকসহ ১৬ জেলেকে আটক করে মঙ্গলবার দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. বদরুদ্দোজা শুভ জেলেদের মধ্যে মালিক সরোয়ার হোসেনকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। বাকী ১৫ জেলেসহ ট্রলারটি জেল ও জরিমানা না করেই ছেড়ে দিয়েছেন। জব্দকৃত ইলিশের মধ্যে বাছাই করে জাটকা ইলিশ উপজেলার বিভিন্ন এতিমখানায় বিতরণ করা হয়েছে। আটককৃত সকল জেলেদের বাড়ী বরগুনা সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে।
তালতলীর ছকিনা কোস্টগার্ডের পেটি অফিসার মর্তুজা আলী জানান, সোমবার রাত অনুমানিক ১২টার দিকে কোস্টগার্ডের নিয়মিত অভিযান পরিচালনার সময় পায়রা ও বিষখালী নদীর মোহনা থেকে ট্রলারটি সন্দেহ জনক ভাবে আটক করা হয়। পরে ট্রলারে থাকা ১৬জন জেলেসহ প্রায় ১০মন জাটকা ইলিশ ও ট্রলারটি ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. বদরুদ্দোজা শুভ বলেন, পায়রা ও বিষখালী নদীর মোহনা থেকে কোস্টগার্ড ১টি ট্রলার, পর্যাপ্ত জাটকাসহ ১৬ জেলেকে আটক করে নিয়ে আসে। তবে একই ধরনের অপরাধ হওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১৬ জেলের মধ্যে একজন জেলেকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করে অন্য ১৫ জেলে ও ট্রলারটি জেল জরিমানা ছাড়াই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া জব্দকৃত মাছগুলো বিভিন্ন এতিমখাননায় বিতরণ করা হয়েছে।