সদ্যজাত শিশুকে ট্যাক্সিতে রেখেই ভুলে চলে গেলেন বাবা-মা!

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৭:৫১ অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০১৯ | আপডেট: ৭:৫১:অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০১৯

মানব জীবনে ভুলে যাওয়া একটি অপরিহার্য অংশ। অন্যমনস্কতা বা বিশেষ কোন কারণে মানুষ কিছু কিছু বিষয় ভুলে যায়। কিন্তু তাই বলে নিজের সদ্যজাত সন্তানকেও ভুলে যাবে মা?

হ্যাঁ, এমনটাই ঘটেছে জার্মানির হামবুর্গে। জীবনের সবচেয়ে মূল্যবান ও প্রিয় জিনিসটি হারাতে বসেছিলেন বাবা-মা। সদ্যজাত শিশুকে ভুলে ট্যাক্সিতে ফেলে রেখেই চলে যাচ্ছিলেন তারা। তাও হাসপাতাল থেকে শিশুকে নিয়ে মাত্র বাড়ি ফিরছিলেন। যে উপলক্ষে হাসপাতালে গেলেন এবং ফিরলেন, তা তো ওই আদরের ধন বাচ্চাটি। অথচ তার কথাই বেমালুম ভুলে গেলেন বাবা-মা।

জার্মানিতে ঘটেছে এমন ঘটনা। হামবুর্গ পুলিশ গতকাল সোমবার জানায়, ওই দম্পতির এক বছর বয়সী বাচ্চাও রয়েছে। তারা হাসপাতাল থেকে ফিরে গাড়ি থেকে নামেন। বড় শিশুটাকে নেন। ব্যাগ ও জিনিসপত্র নিয়ে চালককে ভাড়া মিটিয়ে গুডবাই বলে চলে যান। তারপর তাদের মনে পড়ে, গাড়িতে কাউকে ফেলে এসেছেন।

এদিকে, ট্যাক্সি চলে গেছে। চালক জানেন না তার গাড়িতে একটা ঘুমন্ত যাত্রী এখনো আছে। বাবার মনে পড়তেই গাড়িটাকে ধরতে দ্রুত হাঁটেন। কিন্তু গাড়িকে কী আর পাওয়া যায়! এদিকে, ট্যাক্সি চালক লাঞ্চ করার জন্যে গাড়িটা একট আন্ডাগ্রাউন্ড গ্যারেজে পার্ক করেন। পরে তিনি যখন বিমানবন্দর থেকে আরেকটা ভাড়া নিলেন, তার আগ পর্যন্ত বুঝতেই পারেননি যেন গাড়িতে একটা শিশু রয়েছে।

পরে পুলিশকে খবর দেন চালক। দ্রুত অ্যাম্বুলেন্স ডেকে তার স্বাস্থ্যপরীক্ষা করা হয়। সৌভাগ্যবশত সে সুস্থ ছিল। পরে বাবা-মায়ের হাতে তুলে দেয়া হয় শিশুকে।