একটি বাড়ি একটি খামারের মাধ্যমে দেশের জনগণ স্বাবলম্বি হচ্ছে -আমির হোসেন আমু এমপি

প্রকাশিত: ৭:০০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০১৯ | আপডেট: ৭:০০:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৫, ২০১৯

শিল্পমন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আমির হোসেন আমু এমপি বলেছেন, আমাদের দেশে মাদকের প্রবেশ দেশের বিরুদ্ধে একটি বড় ষড়যন্ত্র। ব্রিটিশ আমলে ইন্ডাস্ট্রিজের পাশে ব্রথেল এবং বার স্থাপন করা হতো। যাতে শ্রমিকরা কাজ শেষ করে অনৈতিক কাজে সময় পার করে শারিরীক ও আর্থিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ে। কখনো আন্দোলনের কথা চিন্তাও করতে না পারে। আমাদের দেশে যারা মাদক সাপ্লাই দিচ্ছে তারা যুব সমাজকে দুর্বল করে আমাদের দেশকে ধ্বংস করার পায়তারা চালাচ্ছে। আমাদের দেশের সীমানা নিয়ে পার্শবর্তি দেশ অনেক প্রশ্ন করছে। সেদিকে লক্ষ রেখে মনে করতে হবে আমাদের জাতি সত্তা, আমাদের দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের একটি অংশ পরিবার থেকে শুরু করে জাতীয় পর্যায়ে এটির গুরুত্ব অপরিসীম।
এমপি আমু আরো বলেন, একটি বাড়ি একটি খামারের মাধ্যমে দেশের জনগণ স্বাবলম্বি হচ্ছে। পাশাপাশি দেশও সমৃদ্ধশালী হচ্ছে। দেশের এই সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রা টিকিয়ে রাখার স্বার্থে মাদকবিরোধী অভিযানে অংশগ্রহণ করা উচিত। যে পরিবারটি স্বালম্বি হচ্ছে সেই পরিবারের সন্তান যদি মাদকাসক্ত হয় তাহলে সেই পরিবারের সমস্ত পরিশ্রম বৃথা হবে। ভবিষ্যৎ বংশধর অকার্যকর হবে, নানান ভাবে বংশানুক্রমিক হারে সমস্যাগ্রস্ত হবে। যত প্রকল্পই দেয়া হোক না কেন সমস্ত প্রকল্প বাস্তবায়নের ফল যদি বৃথা হয়, তাহলে আগামী প্রজন্ম বিপথগামী হবে। সন্তানরা লেখাপড়া ফাঁকি দিয়ে যদি মাদকাসক্ত হয় তাহলে তো সফলতা আসবে না। সেদিকে লক্ষ্য রেখে আমাদের সকলকে কাজ করতে হবে। আইনপ্রয়োগ করেই সকল কাজ সম্পন্ন করা যায় না। আইন প্রয়োগের পাশাপাশি সকলকে সচেতন হতে হবে। মাদকাসক্তদের সামাজিকভাবে ঘৃণা-তিরস্কার করলে আইন প্রয়োগের চেয়ে সংশোধনের চেয়ে বেশি কাজ করে। ঝালকাঠি জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর কর্তৃক আয়োজিত মাদক, জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ রোধে সচেতনতা মূলক অনুষ্ঠান এবং একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
জেলা প্রশাসক মোঃ হামিদুল হক’র সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমএম মাহমুদ হাসান, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল­াহ পনির, পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আরিফুর রহমান খান, জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপপরিচালক মিজানুর রহমান। সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় জেলা যুব ভবনের হলরুমে এ আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়