দুই ছাত্রীকে যৌন হয়রানি : বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:৫৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০১৯ | আপডেট: ৯:৫৩:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০১৯

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে অভিযুক্ত কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগের সভাপতি ও সহকারী অধ্যাপক আক্কাস আলীর বিচারের দাবিতে গতকালের আন্দোলনের পর এবার ক্লাস পরীক্ষা বর্জন করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে সিএসই বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

সোমবার সকাল ৯টা থেকে প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী নিজ বিভাগের সামনে অভিযুক্ত শিক্ষক আক্কাস আলীর স্থায়ী বহিষ্কারের দাবিতে এ অবস্থান কর্মসূচী শুরু করে।

কর্মসূচীতে অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা জানান, এর আগেও বিশ্ববিদ্যালয়ে এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে কিন্তু কোনো ঘটনার যথোপযুক্ত বিচার হয়নি, তদন্ত কমিটি গঠনের নামে কেবল কালক্ষেপণ করা হয়েছে। আমরা এধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তি চাই না। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আক্কাস আলীকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার না করা পর্যন্ত আমাদের এ কর্মসূচী চালিয়ে যাবো।

শিক্ষার্থীরা আরো জানান, আক্কাস আলী যৌন হয়রানি ছাড়াও অনেক ধরনের দুর্নীতিতে যুক্ত। কোনোভাবেই এমন দুর্নীতিবাজ, যৌন হয়রানিকারীকে তাদের শিক্ষক হিসেবে মেনে নারাজ।

উল্লেখ্য, সিএসই বিভাগের দুই ছাত্রী ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের নিকট শিক্ষক আক্কাস আলীর দ্বারা যৌন হয়রানির শিকার হওয়ার অভিযোগ করে। কিন্তু ২ মাসেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কোনো উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় গতকাল (রোববার) শিক্ষার্থীরা আক্কাস আলীর শাস্তি নিশ্চিত সহ ৫ দফা দাবিতে আন্দোলন শুরু করে। আন্দোলনের মুখে প্রশাসন আক্কাস আলীকে সাময়িক বহিষ্কার করে এবং চার সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে পাঁচদিনের মধ্যে রিপোর্ট জমা দেয়ার নির্দেশ প্রদান করে।