ঢাবিতে মারধরের শিকার দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী রবিউলকে দেখতে গেলেন ভিপি নুর

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০১৯ | আপডেট: ৯:৫৩:পূর্বাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০১৯

বুধবার দুপুরে মারধরের শিকার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী রবিউল ইসলামকে দেখতে মাস্টারদা সূর্যসেন হলে তার রুমে (২০৯ নম্বর) গিয়েছেন ডাকসুর নবনির্বাচিত সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ডাকসুর নবনির্বাচিত সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক আখতার হোসেন, কোটা আন্দোলনের নেতা মুহাম্মদ রাশেদ খাঁন, ফারুক হাসান প্রমুখ।

এসময় দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী রবিউল ইসলামের খোঁজ-খবর নেন ভিপি নুর এবং তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

মুহাম্মদ রাশেদ খাঁন বলেন, ডাকসু নির্বাচনে কারচুপির প্রতিবাদে অনশনে বসেছিলেন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী রবিউল। এজন্য তাকে নির্যাতন করা হয়। ভোট ডাকাতরা প্রতিবন্ধীদেরকেও ভয় পায়!

রাশেদ আরও বলেন, বুধবার দুপুরে ডাকসুর ভিপিসহ আমরা রবিউলকে দেখতে সূর্যসেন হলে গিয়েছিলাম এবং তার খোঁজ-খবর নিয়েছি। তার মুখ থেকে শুনলাম নির্যাতনের বর্ণনা।

জনা যায়, অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগে ডাকসুর পুন:নির্বাচনের দাবিতে অনশনে অংশ নেওয়ার ‘অপরাধে’ মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টারদা সূর্যসেন হলে মারধরের শিকার হন রবিউল ইসলাম।

এ ব্যাপারে রবিউল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে সূর্যসেন হলের নিজের কক্ষ (২০৯ নম্বর) থেকে তিন তলার একটি কক্ষে (৩২৬ নম্বর) যাচ্ছিলাম বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দেয়ার জন্য। পথিমধ্যে করিডরে আমার পথ আটকে একজন জানতে চান, আমি ডাকসুর পুন:নির্বাচনের দাবিতে অনশন করেছিলাম কি না। হ্যাঁ বলতেই তিনি আমাকে গালিগালাজ করেন ও কিল-ঘুষি মারতে শুরু করেন। করিডরে তখন কেউ ছিল না আর আমি অন্ধ হওয়ায় ওই লোককে চিনতে পারিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ‍শিক্ষার্থী রবিউল হলটির আবাসিক ছাত্র; ডাকসু নির্বাচনে সমাজসেবা সম্পাদক পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী ছিলেন।

এদিকে, রবিউল ইসলামের উপর হামলার প্রতিবাদে বুধবার অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা। বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এই কর্মসূচি পালন করা হয়।