কালকিনিতে বাল্যবিয়ে ভেঙে দেওয়ায় দশম শ্রেণির ছাত্রী উপর হামলা

প্রকাশিত: ৯:২৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৫, ২০১৯ | আপডেট: ৯:২৮:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৫, ২০১৯
SONY DSC

স্টাফ রিপোর্টার॥ মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলায় বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় এক স্কুলছাত্রীকে পিটিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করার অভিযোগ উঠেছে এক প্রবাসি যুবকের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার সকাল ৭ টায় কালকিনি পৌর এলাকার চরঝাউতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতকে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত হচ্ছে শুকতারা (১৬) কালকিনি পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী। সে ওই এলাকার মোফাজ্জল হোসেনের মেয়ে।

পরিবার সূত্রে জানাযায়, প্রায় এক বছর আগে সাহেবরামপুর এলাকার সালাম আকনের বড় ছেলে রুমন আকন (৩০) এর সঙ্গে পাঙ্গাসিয়া গ্রামের মোফাজ্জেল হাওলাদারের মেয়ে শুকতারা আক্তারের বিয়ের এনগেজমেন্ট (আকদ) হয়। তখন কথা থাকে শুকতারার প্রাপ্ত বয়স হওয়ার পরে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হবে। কিন্তু পরবর্তীতে পারিবারিক কোলাহল কারণে বিয়ে ভেঙে দেয় শুকতারার পারিবার। এতে রুমন আকন ক্ষিপ্ত হয়ে যায়। সে তখন তার ছোট ভাই শামন আকন (২৫) কে দিয়ে প্রায়ই স্কুলে যাওয়ার পথে শুকতারাকে উত্যক্ত করাতো । মঙ্গলবার সকালে বাড়ি থেকে হেঁটে কচিনে যাচ্ছিল শুকতারা ।এ সময় শামন আকন ও তার বন্ধুরা পথ অবরুদ্ধ করে শুকতারাকে তুলে নেয়ার চেষ্টা চালায়। তখন শুকতারা ডাকতিৎকার করলে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাথারী কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। এতে তার মাথায় গুরুতর যখম হয়। পরে স্থানীয়রা ঘটনা স্থলে ছুটে যায় এবং আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। কর্তব্যরত চিকিৎসক শুকতারার অবস্থা আশঙ্কজনক হওয়ায় বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করে। বর্তমানে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জ লড়ছে সে।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে বলে আহতের চাচা রফিকুল ইসলাম জানায়। এ ঘটনায় কালকিনি থানার অফিসার ইনচার্জ বলেন, এই ঘটনার পর বখাটে শামন আকন পালিয়ে গেছে। তাকে ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে।