ভোলায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৩০ দোকান পুড়ে ছাই

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৪:০৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯ | আপডেট: ৪:০৪:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯

ভোলা প্রতিনিধি॥

ভোলার সদরের ২নং পূর্ব ইলিশা ইউনিয়নের জংশন বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে প্রায় ৩০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় ৬ কোটি টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়।শনিবার (১২ জানুয়ারী) রাত সাড়ে ৯টার দিকে জংশন বাজারে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সদর উপজেলার ইলিশা ইউনিয়নের জংশন বাজারের পূর্ব পাশে একটি ওয়ার্কশপের দোকানে থেকে আগুন লেগে তাৎক্ষনিক আগুনের লেলিয়ান শিখা ছড়িয়ে পড়ে পুরো বাজারে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট প্রায় দুই ঘটনা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।

স্থানীয়রা প্রথমে আগুন নিয়ন্ত্রন আনার চেষ্টা করে এবং ভোলা ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট প্রায় দুই ঘটনা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়। আগুন নিয়ন্ত্রন আনা পর্যন্ত জংশন পুিিলশ ফাঁড়ির সংলগ্ন থেকে ওয়াফদা পুকুর পারের মসজিদ পর্যন্ত প্রায় ৩০টি দোকান সম্পূর্ণপুড়ে ভস্মিভূত হয়। এতে প্রায় ৬ কোটি টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

এ ঘটনায় ২টি মুদি দোকান, ২টি টিভি’র শো-রুম, ৩টি ইলেকট্রনিক্স দোকান, ৩টি মোবাইলের শো রুম, ২টি হার্ডওয়্যাারের দোকান, ২টি সার-কিটনাশকের দোকানসহ ৩০টি দোকান ও দোকানের মালামাল পুড়ে গেছে। এতে প্রায় ১০ কোটি টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করছেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা।

এঘটনায় সর্বস্ব হারিয়ে ব্যবসায়ীরা বারবার মুর্ছা যাচ্ছেন। কয়েকজন ব্যবসায়ী সাথে যোগাযোগ করলে তারা বলেন, আমরা এই দোকান দিয়ে সংসার ও ঋণের কিস্তি দিতাম। এখন আমাদের দোকান পুড়ে যাওয়ায় আমরা সর্বস্ব হারিয়েছি। কিভাবে নতুন করে ব্যবসা শুরু করবো এবং ঋণের টাকা দিবো সেটাই বুঝতে পারছি না।

ভোলা ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক মো. জাকির হোসেন জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের এক ঘণ্টারও একটু বেশি সময় লাগে। এ ঘটনায় প্রায় ৩০ টি দোকান পুড়ে গেছে। তবে কেউ হতাহত হয়নি।
তিনি আরও বলেন, ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৬ কোটি টাকার মতো হতে পারে।