রাজাপুরে বিএইচ হারুনের দলীয় মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৩:৪৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২, ২০১৮ | আপডেট: ৩:৪৭:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২, ২০১৮

ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া) আসনে আ’লীগের মনোনীত প্রার্থী জাতীয় সংসদের ধর্ম মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি রাজাপুর উপজেলা আ’লীগ সভাপতি আলহাজ্ব বজলুল হক (বিএইচ) হারুনের মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে কেন্দ্রীয় আ’লীগের উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনিরের সমর্থক মানববন্ধন কর্মসূচিকে ঘিরে আ’লীগগের দু’পক্ষ বিক্ষোভ করেছে। কর্মসূচিতে পুলিশ বাধা দিলে মনিরের সমর্থকদের সাথে পুলিশের ধস্তাধস্তির ঘটনায় ঘটেছে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার সকাল ১০ টা দিকে উপজেলা যুবলীগ অফিসে অবস্থান নিয়ে কেন্দ্রীয় আ’লীগ নেতা মনিরের সমর্থকরা প্রতিবাদ সভা করে মানববন্ধন কর্মসূচির প্রস্তুতি নিলে পুলিশ তাদের অফিস থেকে বের হতে দেয়নি। প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন রাজাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন ও রিয়াজ মাতুব্বর, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ডেজলিং তালুকদার, নাসির মৃধা, উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতি শহিদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক ইউসুফ সিকদার, জাকির হোসেন, হেমায়েত উদ্দিন, মিজানুর রহমান, হুমায়ুন কবির ও আলমগীর চৌধুরী।
এ খবর পেয়ে রাজাপুর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা আক্তার লাইজু, এমপির ভাই জেলা আ’লীগ নেতা গালুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল হক কামাল, মঠবাড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল সিকদার, উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহমুদুল হাসানসহ আ’লীগের মনোনিত প্রার্থী বর্তমান সাংসদ বিএইচ হারুনের সমর্থকরা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সামনের সড়কে অবস্থান নিয়ে নানা শ্লোগান দিতে থাকে। পরে পুলিশ তাদের ডাকবাংলো এলাকার দিকে সরিয়ে দিলে তারা নানা বিক্ষোভ শুরু করে এবং কেন্দ্রীয় আ’লীগ নেতা মনিরের সমর্থকদেরও যুবলীগ অফিস এলাকা থেকে থানা রোড এলাকায় সরিয়ে দিলে সেখানে তারা মানববন্ধন করার চেষ্টা করলে পুলিশের সাথে ধস্তাধস্তি শুরু হয়।
এ ব্যাপারে এমপির ভাই জেলা আ’লীগ নেতা গালুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল হক কামাল বলেন, মনির উপজেলা আ’লীগের সদস্য। দলের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে তার সমর্থকদের দিয়ে আ’লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিপক্ষে মিছিল করার চেষ্টা করছিল। খবর শুনে আমাদের ছেলেরা একত্রিত হয়েছে।
ঝালকাঠির সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (রাজাপুর সার্কেল) মোঃ মোজাম্মেল হোসেন রেজা জানান, উভয় পক্ষকে নিবৃত করে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়েছে। শহরের বিভিন্ন স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।