মাদারীপুর ৩ এ থেমে গেছে নির্বাচনী হাওয়া!

নাজমুল হক নাজমুল হক

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ৯:৫৭ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০১৮ | আপডেট: ৯:৫৭:পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০১৮

মাদারীপুর প্রতিনিধি। 01772327799

মাদারীপুর ৩ আসনে বইছিলো নির্বাচনী হাওয়া,আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম পাবে দলিও মনোনয়ন শতভাগ নিশ্চিত।এই আশা নিয়ে বাহাউদ্দিন নাছিমের সাথে মাঠে নেমেছিল মাদারীপুর ৩-( সদরের আংশিক,কালকিনি- ডাসার) অসংখ্য সাধারন ভোটার ও দলিও নেতা কর্মীরা। কঠোর শ্রম, উন্নয়নমূলক কাজ, জনদরদী সব মিলিয়ে খেতাব পেয়েছে ‘মাটিও মনুষের নেতা’ হিসেবে। কালকিনিবাসী কে আপন করে নিতে বেশী সময় লাগেনি এ নেতার। অর্জন করেছে সাধারন ভোটার ও নেতা কর্মীদের আস্থা বিস্বাস ও ভালবাসা। সবার মুখে একই কথা ‘জনপ্রিয়তার শীর্ষে বাহাউদ্দিন নাছিম। আলোচনায় ছিলো সৈয়দ আবুল হোসেন।

১৭ জন মনোনয়ন কিনলেন মাদারীপুরের ৩ আসনে (সদরের আংশিক,কালকিনি,ডাসার)। মনোনয়ন বিতর্কে তৃতীয় পর্যায় থেকে উঠে এলো ড. আব্দুস সোবহান গোলাপের নাম। দলিয়ো মনোনয়ন আব্দুস ছোবাহান গোলাপ পেয়েছে এমন খবরই সর্বত্র।

আব্দুস সোবাহান গোলাপ কে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে, এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে শুরু হয় বিতর্ক। গত পাঁচদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল বাহাউদ্দিন নাছিমের পক্ষে স্ট্যাটাস।

আওয়ামীলীগের ভোট ব্যাংক হিসেবে পরিচিত মাদারীপুর-৩ (সদরের আংশিক-কালকিনি-ডাসার)। তৃণমূলের মতামত উপেক্ষা করে কৃষিবিদ আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম ও সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন কে বাদ দিয়ে ড. আব্দুস সোবাহান গোলাপকে মনোণয়ন দেওয়া হয়েছে বলে সর্বত্রই গুঞ্জন শুরু হয়েছে। অন্যদিকে বিএনপি’র নেতাকর্মিদের মাঝে সস্তি ফিরে এসেছে।

বাহাউদ্দিন নাছিম মনোনয়ন পাচ্ছে না
ভোটের আগে হঠাৎ করে এ খবরে থেমে গেছে নির্বাচনী হাওয়া। ঝিমিয়ে পড়েছে ও শোকের ছায়া নেমেছে আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের মাঝে।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, দলিও নেতা কর্মী ও সাধারন জনগণ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ও বিভিন্ন ভাবে প্রকাশ করে ‘তারা বাহাউদ্দিন নাছিম কেই কালকিনির এম পি হিসেবে দেখতে চায়’।
kazi imran hosen এর স্ট্যাটাস ‘নাছিম ভাইদের মতো মুজিব সৈনিকদের রক্ত ঘাম ত্যাগে লেখা হয় আওয়ামীলীগের বিজয়ের ইতিহাস’। zahidul Islam bashu লিখেছে-আওয়ামীলীগের খাটি সোনা বাহাউদ্দিন নাছিম। Kazi zahirul haque tori- নাছিম ভাই যেই আসনে নির্বাচন করবে আমি সেখানেই বাড়ি করে ভোটার হবো। Omar faruk- সুখে দুখে যাকে পাই সে হলো নাছিম ভাই। Md aziz – একশো ভাগ নেতা কর্মীর প্রানের দাবী একটাই এম পি হিসেবে আবারো নাছিম ভাই কে চাই। saiful islam- ত্যাগী নেতা নাছিম ভাই আশা কিন্তু ছাড়ি নাই। zamil sikder লিখেছে- ত্যাগ দলিয়ো আনুগত্য ও জনপ্রিয়তার বিবেচনায় যদি একজনমাত্র প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয়া হয় তবে তার নাম হওয়া উচিত বাহাউদ্দিন নাছিম।
Md shawkat hossain তার আইডি দিয়ে স্ট্যাটাস দেন, একজন বাহাউদ্দিন নাছিম অবমূল্যায়ন হলে দলের প্রতি কর্মীদের আস্থা হারাবে।

স্থানীয় একাধিক সুত্রে জানা যায়, এম পি হিসেবে নতুন করে ড. আব্দুস সোবাহান গোলাপে নাম আসায় ভোটের হিসাব-নিকাশ পাল্টে যেতে পারে। এতে স্থানীয় আওয়ামীগ নেতাকর্মীর মধ্যে উদ্বেগ ও চরম হতাশা দেখা দিয়েছে। আওয়ামীলীগ ও বেশির ভাগ ভোটাররা বলছেন, জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন কৃষিবিদ আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম এমপি। এ আসনে আওয়ামী লীগের দুই হেভিওয়েট প্রার্থী থাকলেও গণসংযোগ করেছে শুধু বাহাউদ্দিন নাছিম।

আরো জানা যায়, বাহাউদ্দিন নাছিম আগামী নির্বাচন কে সামনে রেখে প্রতিটি ইউনিয়নে জাতীয় নির্বাচন ভোট কেন্দ্র কমিটি করেছেন।

আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহাবদ্দিন মোল্লা বলেন , কালকিনির মাটি ও মানুষের জনপ্রিয় নেতা কৃষিবিদ আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম এমপি। বিগত ৫ বছরে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের প্রতিটি মাঠ-ঘাট ও পাড়া-মহল্লা চষে বেড়িয়েছেন এবং ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন বার্তা পৌছে দিয়েছেন। তাকে মনোণয়ন না দিলে তৃণমূলে চরম হতাশা দেখা দিবে। তিনি আরো বলেন, ড. আব্দুস সোবাহান গোলাপ একজন জন বিচ্ছিন্ন নেতা। তার সাথে এই আসনের তৃণমূল নেতাকর্মী বা সমর্থকদের কোনো যোগাযোগ বা সম্পর্ক নেই। ফলে এমন একজন ব্যক্তিকে মনোণয়ন দেয়া হলে এই আসনের ভোটের হিসাব-নিকাশ পাল্টে যেতে পারে।

ড. আব্দুস সোবাহান গোলাপের সাথে কথা বলার জন্য একাধিক বার তার মুঠোফোনে ফোন দিলে তিনি রিসিভ করেনি