সংসদ নির্বাচনের আচরণ বিধিমালা বাস্তবায়নে বরিশালে মোবাইল কোর্ট অভিযান

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৭:২৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৮ | আপডেট: ৭:২৬:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৮
বরিশালঃ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচনী এলাকার সকল প্রকার নির্বাচনী প্রচার সামগ্রী অপসারণ করার লক্ষ্যে মাননীয় নির্বাচন কমিশন গত ১৮ নভেম্বর ২০১৮ তারিখ রাত ১২:০০ ঘটিকা পর্যন্ত সকল রাজনৈতিক দল এবং প্রার্থীকে ১০ দিনের সময় সিমা বেধে দিয়েছিলো পোস্টার, ব্যানার, দেয়াল লিখন, বিলবোর্ড, গেইট, তোরণ বা ঘের, প্যান্ডেল, আলোকসজ্জা ইত্যাদি প্রচার সামগ্রী বা প্রচার সামগ্রীর সাদৃশ্য অনুরূপ সামগ্রী বা দ্রব্যাদি অথবা নির্বাচনী ক্যাম্প অপসারণের জন্য। তারি ধারাবাহিকতায় ২০ নভেম্বর এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্তৃপক্ষের সহায়তায় উক্ত সামগ্রীসমূহ অপসারণের বিষয়টি পর্যবেক্ষণের জন্য জেলা প্রশাসক বরিশাল এস.এম. অজিয়র রহমান এর নির্দেশে উক্ত মোবাইল কোর্ট আইন ২০০৯ এর আওতায় আচরন বিধি প্রতিপালন নিশ্চিত করনের লক্ষে বরিশাল মহানগরসহ বিভিন্ন উপজেলায় এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট দ্বারা ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয় এবং একই সাথে সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদের সহযোগিতায় পুলিশের উপস্থিতিতে অপসারিত না হওয়া ব্যানার, ফেস্টুন, পোস্টার, প্ল্যাকার্ড, বিলবোর্ড, প্রতীক অপসারণ করা হয়।
বরিশাল মহানগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে মোঃ মোজাম্মেল হক চৌধুরী, সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, মাহমুদা কুলসুম মনি, এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, মনিরা খাতুন, সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট এবং আসমা জাহান সরকার,সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট বৃন্দ বিভিন্ন দলের প্রতীক ১২টি, ২৫ টি ব্যানার, ৩৫০ টি পোষ্টার, ২টি বিলবোর্ড অপসারণ করেন। আগৈলঝাড়া উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন বিপুল চন্দ্র দাস, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, তিনি মোবাইল কোর্ট এর মাধ্যমে ১৫ টি ব্যানার, ১৫০ টি পোষ্টার, ১০ টি প্ল্যাকার্ড অপসারণ করেন। বরিশাল সদর উপজেলায় মহানগর ব্যতীত উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন মোঃ আমীনুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, তিনি মোবাইল কোর্ট এর মাধ্যমে ২৫ টি ব্যানার, ৩৫০ টি পোষ্টার, ১৫ টি প্ল্যাকার্ড অপসারণ করেন। বাকেরগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন ঊর্মি ভৌমিক, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, তিনি ১০ টি ব্যানার, ৩০০ টি পোষ্টার, ১৫ টি বিলবোর্ড/প্ল্যাকার্ড অপসারণ করেন। গৌরনদী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন মোঃ মিজানুর রহমান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, তিনি মোবাইল কোর্ট এর মাধ্যমে ১০ টি ব্যানার, ৫০ টি পোষ্টার, ০৩ টি বিলবোর্ড অপসারণ করেন। হিজলা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন এস. এম. রবিন শীষ, সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, তিনি মোবাইল কোর্ট এর মাধ্যমে ৩৫ টি ব্যানার, ১৫০ টি পোষ্টার অপসারণ করেন। মুলাদী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন জয়দেব চক্রবর্তী, সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, তিনি মোবাইল কোর্ট এর মাধ্যমে ০৫ টি ব্যানার, ৭৫ টি পোষ্টার, ১০ টি প্ল্যাকার্ড অপসারণ করেন। মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন রাসেল ইকবাল, সহকারী কমিশনার ও বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, তিনি মোবাইল কোর্ট এর মাধ্যমে ১১ টি ব্যানার, ৪৮ টি পোষ্টার, ৬০ টি বিলবোর্ড অপসারণ করেন। বরিশাল জেলায় মোট ১২ টি নির্বাচনী প্রতীক, ১৩৬ টি ব্যানার, ১৪৭৩ টি পোস্টার ও ১১৫ টি বিলবোর্ড/প্ল্যাকার্ড অপসারণ করা হয়।