মাদারীপুর ৩ বিতর্কের শীর্ষে, ফেইসবুুকে ভাইরাল!

নাজমুল হক নাজমুল হক

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ১২:১৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৮ | আপডেট: ১২:১৫:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৮

নাজমুল হক, মাদারীপুর প্রতিনিধি। 01772327799

আব্দুস সোবাহান গোলাপ কে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে, এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে শুরু হয় বিতর্ক। গত দুদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল বাহাউদ্দিন নাছিমের পক্ষে স্ট্যাটাস। আওয়ামীলীগের ভোট ব্যাংক হিসেবে পরিচিত মাদারীপুর-৩ (সদরের আংশিক-কালকিনি-ডাসার) আসনের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের প্রতিটি মাঠ-ঘাট ও পাড়া-মহল্লা চষে বেড়ানো এবং ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন বার্তা পৌছে দিয়েছেন জনপ্রিয় নেতা কৃষিবিদ আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম এমপি।

 

ভোটের আগে হঠাৎ করেই তৃণমূলের মতামত উপেক্ষা করে কৃষিবিদ আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম ও সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন কে বাদ দিয়ে ড. আব্দুস সোবাহান গোলাপকে মনোণয়ন দেওয়া হয়েছে বলে সর্বত্রই এখন গুঞ্জন শুরু হয়েছে। অন্যদিকে বিএনপি’র নেতাকর্মিদের মাঝে সস্তি ফিরে এসেছে। অনুসন্ধানে দেখা গেছে, দলিও নেতা কর্মী ও সাধারন জনগণ বিভিন্ন ভাবে প্রকাশ করে তারা বাহাউদ্দিন নাছিম কেই কালকিনির এম পি হিসেবে চায়। Md shawkat hossain তার আইডি দিয়ে স্ট্যাটাস দেন, একজন বাহাউদ্দিন নাছিম অবমূল্যায়ন হলে দলের প্রতি কর্মীদের আস্থা হারাবে। Hassan jahangir তার ফেসবুক আইডি দিয়ে স্ট্যাটাস দেয়- মাদারীপুর ৩ আসনের ভালবাসার অপর নাম, বাহাউদ্দিন নাছিম ভাই। Mahady hasan এর স্ট্যাটাস, কালকিনির মানুষ নাছিম ভাই ব্যতীত অন্য কোন প্রার্থী কল্পনা করতে পারেনা।

মীর মিরাজুল ইসলাম লিখেছে, জনতার বন্ধু বাহাউদ্দিন নাছিম ভাই। zamil sikder লিখেছে বাহাউদ্দিন নাছিম হচ্ছে ঝড়ের মুখে উড়ে চলা কোন পাতা নয়,শেখ হাসিনার কঠিন দূঃসময় আলিঙ্গন করা এক বীরের নাম। sheikh abdullah mahamud uzzal লিখেছে, কালকিনি ডাসার মাদারীপুরের সর্বস্তরের আস্থা ও ভালবাসার শেষ ঠিকানা বাহাউদ্দিন নাছিম ভাই। Rofekul Islam লিখেছে ৩ আসনে নাছিম ভাইয়ের কোন বিকল্প নাই। akter sarder তার স্ট্যাটাসে লিখেছে, সারা বাংলার পরিচিত ও জনপ্রিয় নেতা নাছিম ভাই কেই নৌকার মাঝি হিসেবে দেখতে চায় সর্বস্তরের জনগণ। হঠৎ বৃস্টি লিখেছে, নাছিম ভাইকে মনোনয়ন না দিলেই আসনটা হারাবে নিশ্চিত। কামাল খান মন্তব্য করেন বাহাউদ্দিন নাছিম মনোনয়ন না পেলে বিএনপি কে ভোট দেবো। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি zahid hossain anik তার আইডি দিয়ে স্ট্যাটাস দেন, জননেতা বাহাউদ্দিন নাছিম আওয়ামীলীগ এর জীবন্ত কিংবদন্তী যারা যুগে যুগে নয় শত শতবর্ষে দু একজন জন্মায়। khairul hasan jewel সাংগঠনিক সম্পাদক,বাংলাদেশ আওয়ামীস্বেচ্ছাসেবকলীগ তার আইডি দিয়ে স্ট্যাটাস দিয়েছে, ভাল মানুষ কে ইনশাআল্লাহ আল্লাহ রাব্বুল আলা-আমিন ও ঠকাবে না। অন্ধকার শেষে আলো আসবেই। কালকিনির ভোটার সাব্বির হোসাইন,মিরাজ আকন,দুলাল মাতুব্বর,জাহাঙ্গীর, শাহাবুদ্দিন হাওলাদার বলেন, নাছিম ভাই মনোনয়ন না পেলে ভোট দিতেই যাবো না।

 

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, নতুন করে আওয়ামী লীগের ড. আব্দুস সোবাহান গোলাপ ও বিএনপির তরুণদের প্রিয় নেতা আলহাজ্ব আনিসুর রহমান তালুকদার (খোকন তালুকদার) প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনায় ভোটের হিসাব-নিকাশ পাল্টে যেতে পারে। এতে স্থানীয় আওয়ামী নেতাকর্মীর মধ্যে উদ্বেগ ও চরম হতাশা দেখা দিয়েছে। স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও বেশির ভাগ ভোটাররা বলছেন, জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন কৃষিবিদ আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম এমপি। এ আসনে আওয়ামী লীগের দুই হেভিওয়েট প্রার্থী রয়েছেন তবে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন বাহাউদ্দিন নাছিম। জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইলিয়াছ আহমেদ হাওলাদার বলেন, কালকিনির মাটি ও মানুষের জনপ্রিয় নেতা কৃষিবিদ আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম এমপি। বিগত ৫ বছরে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের প্রতিটি মাঠ-ঘাট ও পাড়া-মহল্লা চষে বেড়িয়েছেন এবং ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন বার্তা পৌছে দিয়েছেন। তাকে মনোণয়ন না দিলে তৃণমূলে চরম হতাশা দেখা দিবে। তিনি আরো বলেন, ড. আব্দুস সোবাহান গোলাপ একজন জন বিচ্ছিন্ন নেতা। তার সাথে এই আসনের তৃণমূল নেতাকর্মী বা সমর্থকদের কোনো যোগাযোগ বা সম্পর্ক নেই। ফলে এমন একজন ব্যক্তিকে মনোণয়ন দেয়া হলে এই আসনের ভোটের হিসাব-নিকাশ পাল্টে যেতে পারে।